আর্কাইভ

স্কুল ছাত্রী সেঁজুতির আত্মহনন – বাকেরগঞ্জের দু’ধর্ষককে কলেজ থেকে বহিস্কার

দানিসুর রহমান লিমন, বাকেরগঞ্জ ॥ অবশেষে বুধবার স্কুলছাত্রী সেঁজুতি আক্তার কমলার আত্মহননের ঘটনায় অভিযুক্ত দু’ধর্ষককে কলেজ থেকে বহিস্কার করা সেজুতিহয়েছে। বরিশালের বাকেরগঞ্জের মির্জাগঞ্জ উপজেলার কাঁঠালতলীর আখতার হোসেন চৌধুরী মেমোরিয়াল ডিগ্রী কলেজের একাদশ শ্রেনীর ছাত্র ও সেঁজুতিকে ধর্ষণকারী বখাটে নাসির উদ্দিন আকন ও সাইফুল ইসলাম প্যাদাকে সাময়িক ভাবে কলেজ থেকে বহিস্কার করা হয়।

কলেজের অধ্যক্ষ গাজী মোঃ বজলুর রহমান বলেন, স্কুল ছাত্রী সেঁজুতির আত্মহননের ঘটনায় বাকেরগঞ্জ থানায় দায়ের করা মামলার আসামি তালিকায় তার কলেজের একাদশ শ্রেনীর ছাত্র নাসির উদ্দিন আকন ও সাইফুল ইসলাম প্যাদার নাম রয়েছে। বিষয়টি কলেজ কর্তৃপক্ষের নজরে আসলে এনিয়ে মঙ্গলবার সকালে শিক্ষকদের নিয়ে বৈঠক করা হয়। বৈঠকের সিদ্ধান্ত ও বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. বিমল কৃষ্ণ মজুমদার এবং কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মিজানুর রহমানের সাথে আলাপ করে ওই দু’বখাটের বিরুদ্ধে বহিস্কারের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সে মতে বুধবার এ সিদ্ধান্ত ঘোষনা করা হয়েছে।  

অপরদিকে আজ বুধবারও আত্মহননকারী সেঁজুতির ধর্ষণকারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে বাকেরগঞ্জের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীরা বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছেন। একাধিক সূত্রে জানা গেছে, সেঁজুতির আত্মহননের ঘটনায় অভিযুক্তরা এরপূর্বেও পাদ্রীশিবপুর মাদ্রারাসার জনৈক এক ছাত্রীকে প্রকাশ্যে অপহরণের চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়।

উল্লেখ্য, গত ১৩ অক্টোবর রাতে বাকেরগঞ্জের রঘুনাথপুর গ্রামের বখাটে সাইফুল ইসলাম প্যাদা ও তার সহযোগী নয়ন মৃধা, সাইফুল প্যাদা, নাসির উদ্দিন আকন, রাজিব, শামীম আকন ও সবুজ পরিকল্পিত ভাবে একই গ্রামের সৌদি প্রবাসী ছাদেক মৃধার কন্য ও দশম শ্রেণীর ছাত্রী সেঁজুতি ওরফে কমলাকে জোরপূর্বক বাড়ির পার্শ্ববর্তী বাগানে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ১৪ অক্টোবর ধর্ষিতার মা হাফিজা বেগম থানায় লিখিত অভিযোগ দিলেও তৎকালীন থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি রবিউল ইসলাম মামলা না নিয়ে নানা তালবাহানা শুরু করে। অবশেষে লোকলজ্জায় গত ২১ অক্টোবর রাতে স্কুল ছাত্রী সেঁজুতি পরিবারের সবার অজান্তে নিজ গৃহের আড়ার সাথে ওরনা পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। এ ঘটনায় গত ২২ অক্টোবর বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসি ওসি রবিউল ইসলামকে অবরুদ্ধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। একপর্যায়ে তুমুল বির্তকের মুখে ওসি রবিউল ইসলামকে ষ্ট্যান্ড রিলিজ করা হয়।

এদিকে স্কুল ছাত্রী সেঁজুতি আত্মহননের ঘটনায় ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে বরিশাল সিটি মেয়র এডভোকেট শওকত হোসেন হিরন, বরিশাল জেলা প্রশাসক এস.এম আরিফ-উর রহমান ও শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের নির্দেশে বরিশাল মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ড. মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান  সেঁজুতির বাড়িতে গিয়ে শোক সন্তপ্ত পরিবারবর্গকে সমবেদনা জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »