আর্কাইভ

পট কোম্পানীর ঔষধ লিখে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে অঢেল অর্থ

শাহীন হাসান, বিশেষ প্রতিনিধি ॥ ফুড সাপ্লিমেন্টারি ভিটামিন লিখে সদর হাসপাতালের চর্ম ও যৌন বিভাগের ডা. হাবিব মাসে হাতিয়ে নিচ্ছে প্রায় হাজার টাকা। প্রত্যক্ষ সূত্রে দেখা যায়, প্রতিদিন গড়ে ২০ জন রোগী তার আউটডোর চেম্বারে আসে। এ সুযোগে সে প্রতিটি রোগীর প্রেসক্রিপশনে কমপক্ষে গড়ে ৩টি পট কোম্পানীর কথিত ভিটামিন লিখে থাকেন। নেপথ্যে রয়েছে প্রতিটি পটের বিনিময়ে ৫০ টাকা করে হাতিয়ে নেয় সংশ্লিষ্ট কোম্পানীর কাছ থেকে। সে হিসেবে দৈনিক ২০ জন রোগীর প্রেসক্রিপশন কমপক্ষে ২টি পট লিখে দিলে প্রতিদিন প্রায় ৩ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। যেখানে প্রতিদিন প্রায়ই প্রশাসনের লোকজন ঐ সব বিতর্কিত ঔষধ জব্দ করছে। বেশ কয়েকদিন আগে সাগরদী ধান গবেষণার পিছন থেকে হানিফ নামের এক ব্যক্তিকে র‌্যাব আটক করে জেলে পাঠায়। একটি সরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকুরি করেও ডা. হাবিব কিভাবে বিতর্কিত এ ঔষধ রোগীদেরকে প্রেসক্রিপশন করে। এ নিয়ে ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে ভুক্তভোগীদের মধ্যে। পরিচালক ডা. আব্দুর রশিদ বলেন, আমরা এ ব্যাপারে শীঘ্রই পদক্ষেপ নেবে। ড্রাগ সুপার ভাইজার বলেন, লাইসেন্স বিহীন কোন ঔষধ যাতে বাজারে না থাকে সে লক্ষ্যে শীঘ্রই অভিযানে নামা হবে। অপরদিকে বিতর্কিত ডা. হাবিব বলেন, ঐ সব ঔষধে রেজিষ্ট্রেশন রয়েছে তাই লিখে থাকি।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »