আর্কাইভ

যৌতুকের দাবিতে অমানুষিক নির্যাতনের স্বীকার গৃহবধূ লাইলী

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ দিনমজুর পিতা সাত বছর পূর্বে বিয়ের সময় স্বামী ও তার শশুড় বাড়ির লোকজনের চাহিদা মোতাবেক ৫০ হাজার টাকা যৌতুক দিয়ে বিয়ে দিয়েছিলো লাইলীকে। বিয়ের পর যৌতুকলোভী স্বামী পূর্ণরায় শশুড় বাড়ি থেকে ৫০ হাজার যৌতুক আনার জন্য প্রায়ই শারিরিক নির্যাতন করতো দু’কন্যা সন্তানের জননী লাইলী বেগমকে (২৭)। সর্বশেষ গত ২৬ অক্টোবর নির্যাতনের পর অবরুদ্ধ করে রাখা হয় লাইলীকে। খবর পেয়ে ২৭ অক্টোবর লাইলীর বড় বোন বিউটি বেগম ও তার ছোট ভাই নজরুল ইসলাম অবরুদ্ধর হাত থেকে রক্ষা করতে গিয়েছিলেন। তাদেরকেও পিটিয়ে আহত করা হয়।

ঘটনাটি ঘটেছে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার কলাবাড়িয়া গ্রামে। বর্তমানে গৌরনদী হাসপাতালে বেডে শষ্যাশয়ী রয়েছেন গৃহবধূ লাইলী। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হলে পুলিশ বুধবার যৌতুকলোভী স্বামী সবুজ খানকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরন করেছেন।

গৃহবধূ লাইলী বেগমের দেয়া অভিযোগে জানা গেছে, উপজেলার ছোট ডুমুরিয়া গ্রামের ছত্তার বেপারীর কন্যা লাইলী আক্তারের সাথে সাত বছর পূর্বে সামাজিক ভাবে বিয়ে হয় একই উপজেলার নলচিড়া ইউনিয়নের কলাবাড়িয়া গ্রামের সবুজ খানের।

আরও পড়ুন

Back to top button