আর্কাইভ

হত্যা মামলার আসামিকে ধর্ষণের পর হত্যা ॥ নবজাতকের লাশ উদ্ধার ॥ একজন গ্রেফতার

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ বরিশালের গৌরনদী উপজেলার উত্তর বাউরগাতি গ্রামের আলোচিত ইদ্রিস তালুকদার হত্যা মামলার আসামি সদ্য জামিনপ্রাপ্ত মিনু বেগম রহস্যজনক ভাবে নিখোঁজের তিনদিন পর গতকাল শনিবার সকালে পুলিশ ধান ক্ষেত থেকে তার লাশ উদ্ধার করেছে। মিনু বেগম ঢাকায় অবস্থানরত ওই গ্রামের রিকসা চালক কাদের মোল্লার স্ত্রী। পুলিশ এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার সন্দেহে ওইদিন দুপুরে অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য আবু তালুকদারকে গ্রেফতার করেছে।

নিহতের পুত্রবধূ লাইজু বেগম জানান, গত ৩ নবেম্বর রাতে রহস্যজনক ভাবে তার শাশুড়ি মিনু বেগম (৪০) বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। অনেক খোঁজাখুজি করেও তার কোন সন্ধ্যান পাওয়া যায়নি। গতকাল শনিবার সকালে বাড়ির পাশ্ববর্তী ধানক্ষেতে স্থানীয়রা মিনু বেগমের লাশ দেখে থানা পুলিশকে খবর দেয়। তিনি আরো জানান, একই গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য আবু তালুকদারের সাথে দীর্ঘদিন থেকে তাদের বিরোধ চলে আসছিলো। ওইবিরোধের জের ধরেই আবু তালুকদার ও তার সহযোগীরা অপহরনের পর মিনু বেগমকে হত্যা করেছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

লাশের সুরাতাহাল রির্পোট শেষে গৌরনদী থানার এস.আই অসীম কুমার সিকদার জানান, লাশের শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে ধর্ষণের পর শ্বাসরুদ্ধ করে মিনু বেগমকে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের পুত্রবধূ লাইজু বেগম বাদি হয়ে গতকাল শনিবার দুপুরে আবু তালুকদারকে প্রধান করে আরো অজ্ঞাতনামা ৬/৭ জনকে আসামি করে গৌরনদী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরিশাল মর্গে প্রেরন করেছেন।

নবজাতকের লাশ উদ্ধার
গৌরনদী উপজেলার চন্দ্রহার গ্রামের বটতলা নামকস্থান থেকে গতকাল শনিবার সকালে স্থানীয়রা বাজারের ব্যাগে ভর্তি এক নবজাতকের লাশ দেখে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নবজাতকের লাশ উদ্ধার করেছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »