আর্কাইভ

বাবুগঞ্জের নদী থেকে ভেসে গেছে মস্তকবিহীন তরুণীর লাশ

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার সুগন্ধা নদী দিয়ে ভেসে গেছে মস্তকবিহীন এক তরুণীর লাশ। যুবতীর লাশ ভেসে যাওয়ার খবর পেয়ে নিখোঁজ বোনের সন্ধানে সুগন্ধা নদীতে গত দু’দিন ধরে তল্লাশি অব্যাহত রেখেছে এক হতভাগ্য ভাই। গতকাল শনিবার পর্যন্ত তরুনির লাশের সন্ধ্যান মেলেনি।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর (দোয়ারিকা) সেতুর নিচ দিয়ে লাশটি ভেসে যেতে দেখেছেন স্থানীয়রা। লাশটি স্রোতের টানে উজিরপুর উপজেলার সন্ধ্যা নদীর দিকে ভেসে গেছে। ব্রিজের ওপর দিয়ে স্পষ্ট করে লাশটি দেখা না গেলেও নিচের অংশ বিবস্ত্র এবং গায়ে গাঢ় সবুজ রঙ্গের কামিজ ও হাতে চুড়ি দেখা গেছে বলে। তবে শরীর থেকে মস্তক ছিল বিচ্ছিন্ন। এ ব্যাপারে বিমানবন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি (ভারপ্রাপ্ত) এস.আই সিদ্দিকুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, লোকমুখে লাশ ভেসে যাওয়ার কথা শুনে তারা নদীতে তল্লাশি চালিয়েও লাশের অস্তিত্ব পাননি।
এদিকে যুবতীর লাশ ভেসে যাওয়ার খবর পেয়ে নিখোঁজ বোনের সন্ধানে সুগন্ধা নদীতে তল্লাশি শুরু করেছেন বরিশাল নগরীর কাউনিয়া মাদ্রাসা রোডের তৌহিদুল ইসলাম নামের এক হত্যভাগ্য ভাই। তৌহিদ জানান, গত ৪ অক্টোবর বিকেলে তার বোন দিলশাদ জাহান দিনা ডাঃ অসিত ভূষণ দাসকে দেখানোর উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয়। এ ঘটনায় গত ৭ অক্টোবর নগরীর কাউনিয়া থানায় তিনি একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। তিনি আরো জানান, ডাক্তারের চেম্বারের উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বের হওয়ার সময় তার বোনের পরনে ছিল গাঢ় সবুজ রঙ্গের কামিজ। প্রত্যক্ষদর্শীদের লাশের বর্ণনার সাথে তার বোনের মিল থাকায় গত শুক্রবার থেকে তিনি নদীতে ভাসমান লাশটি হন্য হয়ে খুঁজছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button