আর্কাইভ

প্রভাবশালীদের হুমকির মুখে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন এক ব্যবসায়ী

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ ব্যবসায়ীর পৈত্রিক সম্পত্তি দখল করেও ক্ষ্যান্ত হয়নি স্থানীয় প্রভাবশালী ভূমিদস্যুরা। সম্পত্তি দখলের ঘটনায় থানায় দায়ের করা অভিযোগ প্রত্যাহারের জন্য ওই ভূমিদস্যুরা ব্যবসায়ীকে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতিসহ প্রাণনাশের হুমকি অব্যাহত রেখেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রভাবশালীদের অব্যাহত হুমকির মুখে গত দু’দিন ধরে ব্যবসায়ী পান্না মিয়া এখন পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। ঘটনাটি বরিশালের গৌরনদী পৌরসভার টরকী এলাকার।

টরকী বন্দরের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সুন্দরদী গ্রামের হারুন-অর রশিদ মিয়ার পুত্র পান্না মিয়া অভিযোগ করেন, টরকী বাসষ্ট্যান্ড সংলগ্ন পশ্চিম পার্শ্বের বিভিন্ন দাগের ৯৪ শতক সম্পত্তি তার পিতা হারুন-অর রশিদ মিয়া দীর্ঘ ৪০ বছর পূর্বে স্থানীয় হরগবিন্দ সাধুর কাছ থেকে ক্রয় করেন। সেই থেকে তারা ওই সম্পত্তি ভোগ দখল করে আসছেন। অতিসম্প্রতি ওই সম্পত্তির ওপর লোলুপ দৃষ্টি পরে স্থানীয় হেলাল উদ্দিন হাওলাদারের পুত্র ও প্রভাবশালী ভূমিদস্যু সলেমান হাওলাদারের। সে (সলেমান) জালজালিয়াতির মাধ্যমে ভূয়া কাগজপত্র তৈরি করে ইতোমধ্যে একাধিকবার ওই সম্পত্তি দখল করতে যায়। উপায়অন্তুর না পেয়ে ব্যবসায়ী পান্না পৈত্রিক সম্পত্তি রক্ষা করার জন্য বরিশাল আদালতে ওই জমির ওপর স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারি করান। আদালতের নির্দেশ অমান্য করে প্রভাবশালী সলেমান হাওলাদার গত ৭ নবেম্বর রাত সাড়ে দশটার দিকে তার ৩০/৩৫ জন ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী নিয়ে ওই সম্পত্তিতে ঘর উত্তোলন করতে যায়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ঘর উত্তোলনে বাঁধা প্রদান করে কাজ বন্ধ করে দেয়। পুলিশের উপস্থিতিতে কাজ বন্ধ করা হলেও ওইদিন গভীর রাতে ভূমিদস্যু সলেমান ও তার ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসীরা আদালতের নিষেধাজ্ঞা ও পুলিশের বাঁধা উপেক্ষা করে ব্যবসায়ী পান্না মিয়ার পৈত্রিক সম্পত্তিতে অবৈধ ভাবে ৫ টি কাঠের তৈরি খুপরি ঘর উত্তোলন করেন। এ ঘটনায় পান্না মিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

আরও পড়ুন

Back to top button