আর্কাইভ

বরিশালে পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রধানের নদী ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শন

শুভব্রত দত্ত, বরিশালঃ বরিশালের হিজলা উপজেলার নদী ভাঙ্গন ক্ষতিগ্রস্থ এলাকায় সরজমিনে পরিদর্শন করেন দক্ষিনাঞ্চলের পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান প্রকৌশলী মাহতাব উদ্দিন।

বৃহস্পতিবার হিজলা উপজেলার হরিনাথপুর ইউনিয়নের টুমচর লঞ্চঘাট, মেমানিয়া ইউনিয়নের মেমানিয়া লঞ্চঘাট, গুয়াবাড়ীয়া ইউনিয়নের মৌলভীর হাট লঞ্চঘাট, বড়জালিয়া ইউনিয়নের পুরাতন হিজলা বন্দরসহ বিভিন্ন এলাকার নদী ভাঙ্গন এলাকা পরিদর্শন করেছেন। এ সময় হাজার হাজার ক্ষতিগ্রস্থ জনগন উপস্থিত থেকে মেঘনার কড়াল গ্রাসের হাত থেকে হিজলা উপজেলার বিভিন্ন এলাকাকে নদী ভাঙ্গনের হাত থেকে রক্ষার দাবী জানান।

হিজলার কৃতি সন্তান ও বরিশাল মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ন আহবায়ক এডঃ আফজালুল করিমে’র উদ্যেগে প্রশাসনের বিভিন্ন উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা হিজলার বিভিন্ন নদী ভাঙ্গন এলাকায় পরিদর্শনে আসেন। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলী কাজী মিজানুর রহমান, বরিশাল পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলী হারুনুর রশীদ, বরিশাল জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ ইব্রাহিম হোসেন, বরিশাল মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ন আহবায়ক এডঃ আফজালুল করিম, হিজলা উপজেলা চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ টিপু, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আহসান হাবীব, শিল্পপতি খাজা মজিবুর রহমান, আওয়ামীলীগের নেতা আঃ কাইয়ুম খাঁন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান এডঃ কাজী জাকির হোসেন, আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এনায়েত হোসেন হাওলাদার, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আলতাফ হোসেন, হরিনাথপুর ইউপি চেয়ারম্যান তৌফিকুর রহমান সিকদার, হিজলা প্রেসক্লাবের সভাপতি দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।

এদিকে প্রধান প্রকৌশলী স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান প্রশাসনের উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে নদী ভাঙ্গন রোধে ব্যবস্থা গ্রহন করবেন এবং নদী ভাঙ্গন কবলিত ক্ষতিগ্রস্থ লোকজনের যাতায়াতের ব্যবস্থার জন্য রাস্তা ঘাট, পুল, কালভার্ড নির্মান করার তালিকা প্রস্তুত করে দেওয়ার জন্য স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছেন। হিজলাবাসী দাবী করেছেন সরকার যদি নদী ভাঙ্গন রোধের ব্যবস্থা না নেয় তাহলে হিজলার ঐতিহ্যবাহী ধনুসিকদার বন্দর, মৌলভীর হাট ও পুরাতন হিজলা বন্দর নদীর গর্ভে বিলীন হয়ে যাবে এতে হিজলাবাসীসহ সরকার হারাবে কোটি কোটি টাকার সম্পদ।

আরও পড়ুন

আরও দেখুন...
Close
Back to top button
Translate »