আর্কাইভ

ঢাকাকে হারিয়ে ১৬৩ রানের ব্যবধানে জয় পেয়েছে বরিশাল বিভাগ

শাহীন হাসান ॥ অবশেষে সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অয়ালটন জাতীয় ক্রিকেট লীগ ২০১১-১২ এ বরিশাল বিভাগ ক্রিকেট একাদশ ১৬৩ রান ব্যবধানে জয়লাভ করেছে। ২১ নভেম্বর বরিশাল ভেন্যুর শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী খেলার মধ্য দিয়ে ঢাকা বিভাগ ক্রিকেট একাদশ ও বরিশাল বিভাগ ক্রিকেট একাদশের মধ্যকার খেলা অনুষ্ঠিত হয়। বরিশাল ভেন্যুর ৪ দিনের এই ম্যাচে গতকাল ছিল উভয় দলের জন্য জয়-পরাজয়ের ভাগ্য নির্ধারণীর দিন। তবে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করেও শেষ রক্ষা করতে পারেনি ঢাকা বিভাগ দল। ১০৩ রানে অল আউট হলে, বরিশাল বিভাগ দল ১৬০ রান ব্যবধানে জয়লাভ করে নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণ করেন।

এদিকে লীগের ৩য় দিন শেষে স্বাগতিক বরিশাল ২৭৮ রানে অল আউট হলে টাকা বিভাগকে ২৬৩ রানের টার্গেট বেধে দেয় স্বাগতিকরা। স্বাগতিকদের সেই লক্ষ্যকে মাথায় রেখেই ৩য় দিনের পুঁজি করা ২ উইকেটে ৫৫ রান নিয়ে ব্যাট করতে নেমে কাজের কাজ কিছুই করতে পারেনি ঢাকা বিভাগ। দলের ৬০ রানের পর থেকেই প্রায় সব ব্যাটসম্যানই রানের খড়ায় ভুগতে থাকে। চতুর্থ দিনে ঢাকা দলের ব্যাটিং বিপর্যয়ের ফলে সকাল ১১টার মধ্যেই সবকটি উইকেট হারিয়ে ১০৩ রানের পুঁজি নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় তাদের। তবে স্বাগতিক বরিশাল বিভাগ একাদশের জাতীয় ক্রিকেটার সৈয়দ রাসেলের ব্যাটিং নৈপুন্য ব্যক্তিগত ৯১ রান করতে সক্ষম হয়। জুপিটরের ব্যাট থেকেও আসে ৫৬ রান। রাসেল ম্যান অব দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হন। সংশি¬ষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গতকাল সকালে লীগের শেষ খেলায় শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত স্টেডিয়ামে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিসিসির মেয়র এ্যাড. শওকত হোসেন হিরন। পুরস্কার বিতরণকালে বিসিসি মেয়র বিজয়ী বরিশাল বিভাগ একাদশকে শুভেচ্ছা স্বরূপ ব্যক্তিগতভাবে ৫০ হাজার টাকা প্রদান করেন। এছাড়াও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিজয়ী দলকে ৭৫ হাজার টাকার প্রাইজমানি প্রদান করেন। ম্যান অব দ্যা ম্যাচ সৈয়দ রাসেলকে ১০ হাজার টাকার প্রাইজমানি দেয়া হয়। পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অন্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, বরিশাল বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আলমগীর খান আলো, ক্রিকেট উপ-পরিষদের সাঃ সম্পাদক গোলাম সরোয়ার রাজীব, ক্রিকেট উপ-পরিষদের আহবায়ক মাসুদুর রহমান কুট্টি, বরিশাল বিভাগ দলের কোট শহিদুল ইসলাম মিলন প্রমুখ।

এদিকে দীর্ঘ ৬ বৎসর পর বরিশালে জাতীয় ক্রিকেট লীগের খেলা অনুষ্ঠিত হওয়ায় বরিশাল তথা দক্ষিণাঞ্চলের ক্রিকেটাঙ্গন আবার সজিব হয়ে উঠবে বলে ক্রিকেট প্রেমীরা মনে করেন। তাদের মতে, অত্র লীগ হতে উঠতি ও উদীয়মান ক্রিকেটাররা অনেক কিছু শিখবে বলে তারা মনে করেন। অপরদিকে বিসিসির মেয়র শওকত হোসেন হিরন বরিশালের খেলাধুলার মান উন্নয়নে তার পক্ষ থেকে সব রকম সাহায্যের কথা শুনে ইতিমধ্যে বরিশালের ক্রিড়াঙ্গনে আশার আলো দেখতে শুরু করেছে।

আগামী ২৮ নভেম্বর এই মাঠেই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ঢাকা ও রাজশাহী বিভাগের মধ্যকার ম্যাচ। সকল ক্রীড়ামোদীসহ উঠতি ও স্কুল পড়ুয়া ক্রিকেটারদের খেলা দেখারও আহবান জানান কর্তৃপক্ষ।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »