আর্কাইভ

গৌরনদীতে স্ত্রীকে হত্যা করে মুখে বিষ ঢেলে দেয়ার অভিযোগ

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ স্বামীকে জুয়া খেলতে বাঁধা দেয়ায় বাকবিতন্ডার একপর্যায়ে স্ত্রীকে অমানুষিক নির্যাতনের পর মুখে বিষঢেলে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার সকালে হত্যভাগ্য গৃহবধূর লাশ ময়নাতদন্ত শেষে হস্তান্তর করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার ভুরঘাটা গ্রামে।

নিহতের ভাই মাদারীপুরের মস্তফাপুর বড়বাড্ডা গ্রামের মৃত নুরুল হক মাতুব্বরের পুত্র দিনমজুর তোতা মাতুব্বর অভিযোগ করেন, দীর্ঘ ১৪ বছর পূর্বে গৌরনদীর ভুরঘাটা গ্রামের রাজে আলী মাতুব্বরের পুত্র মিজান মাতুব্বরের সাথে সামাজিক ভাবে তার বোন তাসলিমা বেগমের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে দুটি পুত্র ও একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। অতিসম্প্রতি মিজান জুয়া খেলায় আসক্ত হয়ে পরে। এনিয়ে তাদের পরিবারের মধ্যে দাম্পত্য কলহ লেগেই ছিলো। ঘটনারদিন মঙ্গলবার (২৯ নবেম্বর) রাতে জুয়া খেলতে বাঁধা দেয়ায় তাসলিমার সাথে মিজানের বাকবিতন্ডা হয়। এরজেরধরে মিজান তার স্ত্রী তাসলিমা বেগমকে (৩৩) অমানুষিক নির্যাতন করে মুখে বিষ ঢেলে দেয়। ওইরাতেই স্থানীয়রা মুর্মুর্ষ অবস্থায় তাসলিমাকে প্রথমে কালকিনি পরে মাদারীপুর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে আশংকাজনক অবস্থায় ভোররাতে গৃহবধূ তাসলিমাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার সকালে তাসলিমা মারা যায়। অভিযোগে আরো জানা গেছে, হাসপাতালেই লাশ ফেলে রেখে মিজানের নিকট আত্মীয়রা পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে বরিশাল কোতয়ালী থানা পুলিশ হাসপাতাল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরন করে। এ ঘটনায় কোতয়ালী থানায় একটি ইউডি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এদিকে লোকমুখে খবর পেয়ে নিহতের স্বজনেরা গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে মর্গ থেকে তাসলিমার লাশ গ্রহন করেছেন। এ ব্যাপারে তিনি (তোতা মাতুব্বর) হত্যা মামলা দায়ের করবেন বলেও উল্লেখ করেন।

আরও পড়ুন

Back to top button