আর্কাইভ

বরিশালের চাঞ্চল্যকর সেজুতি আত্মহত্যা মামলার প্রধান আসামি গ্রেফতার

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ অবশেষে বরিশালের বহুল আলেচিত বাকেরগঞ্জের রঘুনাথপুরের স্কুল ছাত্রী সেজুতির আত্মহত্যা প্ররোচনা মামলার প্রধান আসামি সাইফুল ইসলামকে (২১) পুলিশ বৃহস্পতিবার গ্রেফতার করেছে।

বাকেরগঞ্জ থানার চৌকস অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ নুরুল ইসলাম-পিপিএম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার বোয়ালিয়া নামকস্থান  থেকে সাইফুলকে গ্রেফতার করা হয়। সাইফুল ঢাকা থেকে গোপনে বাসযোগে বাড়ির উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলো। পথিমধ্যে সে (সাইফুল) বোয়ালিয়ায় তার এক বন্ধুর সাথে দেখা করতে বাস থেকে বোয়ালিয়া বাজারে নামার পর ওসির নেতৃত্বে পুলিশ সাইফুলকে গ্রেফতার করে।

উল্লেখ্য, রঘুনাথপুর গ্রামের সৌদি প্রবাসী ছাদেক মৃধার কন্যা ও চৈতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে দশম শ্রেনীর ছাত্রী কমলা ওরফে সেজুতির ওপর লোলুপ দৃষ্টি পরে স্থানীয় কতিপয় বখাটেদের। তারই ধারাবাহিকতায় গত ১৩ অক্টোবর রাতে একই গ্রামের মতলেব প্যাদার বখাটে পুত্র সাইফুল ইসলাম, ফারুক মৃধার পুত্র নয়ন, নাছির উদ্দিনের পুত্র রাজিব, আজিজ আকনের পুত্র নাছির, নূরু আকনের পুত্র শামীম, মোজাম্মেলের পুত্র সবুজসহ ৬ বখাটে সেজুতিকে জোরপূর্বক বাড়ির পার্শ্ববর্র্তী বাগানে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ধর্ষিতার মা ১৪ অক্টোবর থানায় লিখিত অভিযোগ দিলেও তৎকালীন থানার বিতর্কিত ওসি রবিউল ইসলাম (অপসারিত) মামলা নেয়নি। ঘটনার পর থেকে কয়েকদিন ধর্ষকেরা ধর্ষিতাকে আবারো ধর্ষণ ও তার স্ব-পরিবারকে বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিয়ে আসছিলো। লোকলজ্জায় ও থানায় মামলা দায়ের করতে না পেরে গত ২১ অক্টোবর রাতে নিজ গৃহের আড়ার সাথে ওড়না পেচিয়ে অভিমানী সেজুতি আত্মহত্যা করে।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »