গৌরনদী সংবাদ

চতুর্থ শ্রেনীর ছাত্রীকে ধষর্ণের চেষ্টা, গ্রাম্য সালিশে শিক্ষককে লাখ টাকা জরিমানা

আতাউর রহমান চঞ্চলঃ চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রীকে (১১) ধর্ষণের চেষ্টার ঘটনায় গ্রাম্য এক সালিশ বৈঠকে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার বাঘমারা বড়দুলালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক বখাটে আঃ লতিফ খানকে এক লাখ টাকা জরিমানা করেছেন। বুধবার রাতে উপজেলার বার্থী এলাহী অটো রাইচ মিলে অনুষ্ঠিত এক সালিশ বৈঠকে এ জরিমানা করা হয়।

সালিশ বৈঠক সুত্রে জানা গেছে, বুধবার রাত ৯টার দিকে গৌরনদী উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান ফরহাদ মুন্সীর মালিকানাধীন এলাহী অটো রাইচ মিলে সালিশ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সালিশ বৈঠকে বরিশাল জেলা পরিষদের সদস্য ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এইচ.এম রাজু আহম্মেদ হারুন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান ফরহাদ মুন্সী ও বার্থী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আঃ রাজ্জাক হাওলাদার উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখিত সালিশরা এ জরিমানা করায় তাদের বিরুদ্ধে বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

বরিশাল জেলা পরিষদের সদস্য ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এইচ.এম রাজু আহম্মেদ হারুন সত্যতা স্বীকার করে মুঠো ফোনে বলেন, ফরহাদ মুন্সীর বার্থীর রাইচ মিলে উভয় পক্ষের উপস্থিতিতে বুধবার রাতে সালিশের মাধ্যমে বিষয়টি মিমাংসা করা হয়েছে। অভিযুক্ত শিক্ষক লতিফ খানকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। তাৎক্ষনিক জরিমানার টাকা আদায় করে নির্যাতিতার পরিবারের হাতে দেয়া হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও বার্থী ইউপির সদস্য খায়রুল আহসান খোকন খান বলেন, এ ঘটনায় নিয়ে ম্যনেজিং কমিটি আলোচনার জন্য বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় জরুরি সভায় বসা হয়েছে। সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

উল্লেখ্য, উপজেলার বাঘমারা বড়দুলালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্রীকে গত বৃহস্পতিবার সকালে স্কুলের শ্রেণিকক্ষে অতিরিক্ত সময় প্রাইভেট পড়ানোর কথা বলে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় ওই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আঃ লতিফ খান।

আরও সংবাদ...

Back to top button