আর্কাইভ

ভাতিজিকে চুমু দেয়ার প্রতিবাদ করায় মৃত্যুর শষ্যায় চাচা তানভীর

উম্মে রুম্মান, বরিশাল ॥ ভাতিজিকে চুমু দিয়ে সেদৃশ্য মোবাইল ক্যামেরায় ভিডিও করে রাখার প্রতিবাদ করায় বখাটেদের হামলায় গুরুতর আহত হয়ে এখন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন চাচা বরিশালের উজিরপুর উপজেলার পূর্ব সানুহার গ্রামের তানভীর হোসেন রাব্বী। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হলেও রহস্যজনক কারনে পুলিশ আসামিদের গ্রেফতার করছেন না বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আহত তানভীর হোসেন রাব্বীর ভাই ও মামলার বাদি নাজমুল মীর অভিযোগ করেন, তার চতুর্থ শ্রেনীতে পড়–য়া কন্যা গত ১ ডিসেম্বর বাড়ি থেকে স্কুলের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। পথিমধ্যে একই এলাকার মৃত মনোয়ার হোসেন নান্নার ছেলে নয়ন মিয়া ও আব্দুস সালামের ছেলে ইলিয়াস আলীসহ ৭/৮ জনে তার মেয়ের পথরোধ করে। এ সময় বখাটেরা জোরপূর্বক তার কন্যাকে চুমু দিয়ে মোবাইল ক্যামেরায় ধারণ করে। এ খবর পেয়ে তার ভাই (স্কুল ছাত্রীর চাচা) মীর তানভীর হোসেন ঘটনাস্থলে পৌঁছে এ ঘটনার প্রতিবাদ করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বখাটে নয়ন, ইলিয়াস ও তাদের সহযোগীরা তানভীরকে উপর্যপুরী কুপিয়ে জখম করে। মুর্মুর্ষ অবস্থায় তানভিরকে প্রথমে উজিরপুর হাসপাতাল ও পরে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তানভীরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় নাজমুল মীর বাদি হয়ে উজিরপুর থানায় গত ৫ ডিসেম্বর সাতজনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করলেও গত আটদিনের রহস্যজনক কারনে পুলিশ আসামিদের গ্রেফতার করেনি। অভিযোগ অস্বীকার করে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উজিরপুর থানার এস.আই আশিষ কুমার জানান, আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশের জোড়প্রচেষ্ঠা অব্যাহত রয়েছে।

আরও পড়ুন

Back to top button