আর্কাইভ

শিরকের শাস্তি!

রনি পারভেজ ‎: আসসালামু'আলাইকুম ওয়া রাহমতুল্লাহি ওয়া বারাকাতুহু, প্রিয় মুসলিম ভাই ও বোনেরা, আপনি যদি কাউকে বড়দিনের শুভেচ্ছা জানান তাহলে আপনি এই সাক্ষ্য দিচ্ছেন যে ২৫ শে ডিসেম্বর আল্লাহ সুবহানা ওয়া তা'আলার পুত্র সন্তান জন্ম গ্রহণ করেছিল। [নাউযুবিল্লাহ]।

মুসলিম হিসেবে আমরা অন্য ধর্মাবলম্বীদের সাথে সদ্ভাব বজায় রাখব। কিন্তু কোনক্রমেই শিরকে তাদের অংশীদার হব না। আল্লাহর প্রতি সর্বনিকৃষ্ট গালি দেয়া হল তাঁ…র প্রতি সন্তান আরোপ করা। আর এই জঘণ্য মিথ্যা আরোপ করে যারা উৎসব পালন করে তাদেরকে এই দিনে শুভেচ্ছা জানানো কত বড় গুনাহ আপনারা হয়তো সহজেই অনুমান করতে পারছেন।

আসুন, আমরা নিজেরা এই গর্হিত কাজে অংশগ্রহণ থেকে বিরত থাকি এবং অন্য মুসলিম ভাই বোনদেরও সাবধান করি।

via: সরল পথ
 

——————————— শিরকের শাস্তি ——————————

"… আল্লাহর সাথে শরীক করো না। নিশ্চয় আল্লাহর সাথে শরীক করা মহা অন্যায়। " [৩১:১৩]

"বলুন, তিনি আল্লাহ, এক, আল্লাহ অমুখাপেক্ষী, তিনি কাউকে জন্ম দেননি এবং কেউ তাকে জন্ম দেয়নি এবং তার সমতুল্য কেউ নেই। " (সুরা ইখলাস)

"নিঃসন্দেহে আল্লাহ তাকে ক্ষমা করেন না, যে লোক তাঁর সাথে শরীক করে। তিনি ক্ষমা কর…েন এর নিম্ন পর্যায়ের পাপ, যার জন্য তিনি ইচ্ছা করেন। আর যে লোক অংশীদার সাব্যস্ত করল আল্লাহর সাথে, সে যেন অপবাদ আরোপ করল। " [৪:৪৮]

"আপনার প্রতি এবং আপনার পূর্ববর্তীদের পতি প্রত্যাদেশ হয়েছে, যদি আল্লাহর শরীক স্থির করেন, তবে আপনার কর্ম নিষ্ফল হবে এবং আপনি ক্ষতিগ্রস্তদের একজন হবেন। " [৩৯:৬৫]

"এটি আল্লাহর হেদায়েত। স্বীয় বান্দাদের মধ্যে যাকে ইচ্ছা, এপথে চালান। যদি তারা শেরেকী করত, তবে তাদের কাজ কর্ম তাদের জন্যে ব্যর্থ হয়ে যেত। " [৬:৮৮]

"নবী ও মুমিনের উচিত নয় মুশরেকদের মাগফেরাত কামনা করে, যদিও তারা আত্নীয় হোক একথা সুস্পষ্ট হওয়ার পর যে তারা দোযখী। " [৯:১১৩]

"তারা কাফের, যারা বলে যে, মরিময়-তনয় মসীহ-ই আল্লাহ; অথচ মসীহ বলেন, হে বণী-ইসরাঈল, তোমরা আল্লাহর এবাদত কর, যিনি আমার পালন কর্তা এবং তোমাদেরও পালনকর্তা। নিশ্চয় যে ব্যক্তি আল্লাহর সাথে অংশীদার স্থির করে, আল্লাহ তার জন্যে জান্নাত হারাম করে দেন। এবং তার বাসস্থান হয় জাহান্নাম। অত্যাচারীদের কোন সাহায্যকারী নেই। " [৫:৭২]

"বলুনঃ আমি ও তোমাদের মতই একজন মানুষ, আমার প্রতি প্রত্যাদেশ হয় যে, তোমাদের ইলাহই একমাত্র ইলাহ। অতএব, যে ব্যক্তি তার পালনকর্তার সাক্ষাত কামনা করে, সে যেন, সৎকর্ম সম্পাদন করে এবং তার পালনকর্তার এবাদতে কাউকে শরীক না করে।" [১৮:১১০]

"বলুনঃ ‘হে আহলে-কিতাবগণ! একটি বিষয়ের দিকে আস-যা আমাদের মধ্যে ও তোমাদের মধ্যে সমান-যে, আমরা আল্লাহ ছাড়া অন্য কারও ইবাদত করব না, তাঁর সাথে কোন শরীক সাব্যস্ত করব না এবং একমাত্র আল্লাহকে ছাড়া কাউকে পালনকর্তা বানাব না। তারপর যদি তারা স্বীকার না করে, তাহলে বলে দাও যে, ‘সাক্ষী থাক আমরা তো অনুগত। " [৩:৬৪]

"আর যেন সোজা দ্বীনের প্রতি মুখ করি সরল হয়ে এবং যেন মুশরেকদের অন্তর্ভুক্ত না হই। " [১০:১০৫]

"আল্লাহর দিকে একনিষ্ট হয়ে, তাঁর সাথে শরীক না করে; এবং যে কেউ আল্লাহর সাথে শরীক করল; সে যেন আকাশ থেকে ছিটকে পড়ল, অতঃপর মৃতভোজী পাখী তাকে ছোঁ মেরে নিয়ে গেল অথবা বাতাস তাকে উড়িয়ে নিয়ে কোন দূরবর্তী স্থানে নিক্ষেপ করল। " [২২:৩১]

 

প্রিয় পাঠক, আপনার নিশ্চয় এ ব্যাপারে কোন সন্দেহ নেই যে আপনার বাবা একজন এবং আমার বাবা ও একজন। ব্যক্তিগতভাবে আমি সব ধরণের গালিগালাজ সহ্য করতে পারি কিন্তু বাস্টার্ড বলে গালি দিলে, আমার মায়ের চরিত্রে কালিমা লেপন করলে আমি ফুসে উঠি বাঘের গর্জন কিংবা সমুদ্রের ঢেউয়ের মত।

আচ্ছা বলুন যদি কেউ আপনার মায়ের চরিত্রে কালিমা লেপন করে আপনি সহ্য করবেন কি? স্বাভাবিকভাবেই উত্তরটি হবে না, কখনই সহ্য করব না, কিছুতেই সহ্য করব না, বিন্দুমাত্র সহ্য করব না। আপনার বাবা দুজন হওয়ার কথা আপনি কল্পনাও করতে পারেন না, আপনার মায়ের চরিত্রের উপর কালেমা লেপন আপনি ভাবতেও পারেন না। জানি না আপনি আপনার আল্লাহকে কতটুকু ভালোবাসেন, তবে আমি আমার আল্লাহকে আমার মায়ের চাইতে বেশি ভালোবাসি, ‌আমার মায়ের নামে কেউ চারিত্রিক অপবাদ দিলে আমি যতটা কষ্ট পাই তার চেয়ে বেশি কষ্ট পাই যখন কেউ আমার আল্লাহর নামে অপবাদ দেয়।আমার মা তো আমাকে জন্ম দিয়েছেন কিন্তু যখন আমি আমার মায়ের পেটে ছিলাম আমাকে তখন খাবার দিয়েছেন কে? আমাকে জীবন দিয়েছেন কে? আল্লাহ সুবাহানাহু ওয়া তায়ালা। আল্লাহ কত পবিত্র! তিনি পবিত্র ঘুম-নিদ্রা-আহার থেকে। আর খ্রীষ্টানরা কী জঘন্য অপবাদ দিয়েছে। তারা বলছে আল্লাহ নাকি বিয়ে করেছেন মা মারিয়ামকে, তারা বলছে আল্লাহর একজন পুত্র সন্তান আছে তার নাম Jesus Christ. সুরায়ে নিসায় আল্লাহ আক্ষেপ করে বলেছেন দেখ! দেখ! তারা কীভাবে আল্লাহকে অপবাদ দেয়। হে আল্লাহ আমি সত্যি লজ্জিত! এই পৃথিবীর ক্ষুদ্র নাপাক মানুষেরা তোমার নামে অপবাদ রটাচ্ছে। আমি কিছু করতে পারছি না, আমি পারছি না এই অপবাদটাকে ধুয়ে মুছে দিতে……… কিন্তু আমি তোমাকে ভালোবাসি…….. সুতরাং হে আমার পালনকর্তা যে অপবাদ তোমাকে কষ্ট দেয় আমি তা মনে প্রাণে ঘৃণা করি। তোমাকে ভালোবাসি বলেই তোমার পদতলে অর্পন করি আমার অবনত মস্তক। তোমার বিরুদ্ধে যত অপবাদ আমি তার সবগুলোকে ঘৃণা করি হোক তা কোন ধর্ম কিংবা মতাদর্শ। “লা ইলাহা ইল্লা আনতা” তুমি ছাড়া আর কোন ইলাহ নাই, তুমি মানুষের সৃষ্টিকর্তা, জ্বীনের সৃষ্টিকর্তা, সমগ্র সৃষ্টি জগতের মালিক। আমার নামাজ, আমার কুরবানী, আমার জীবন, আমার মৃত্যু হে আল্লাহ একমাত্র তোমার জন্য ।

আজ অনেক মুসলমান মুসলমান হয়েও আল্লাহর নামে অপবাদের এই উৎসবে যোগ দিচ্ছে, হায় আফসোস! মুসলমান হয়েও তারা আল্লাহকে চিনল না, মুসলমান হয়েও "লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ" এর অর্থ বুঝল না। তারা আল্লাহর দরবারে কেমন করে মুখ দেখাবে? আল্লাহ আমাদের বুঝার তাওফীক দান করুন।

আজ আমাদের আল্লাহর প্রতি ভালোবাসা নেই, আমাদের ভালোবাসা খ্রীষ্টানদের জন্য, তাই খ্রীষ্টানদের খুশি করার জন্য তাদের সাথে ক্রিস্টমাস উদযাপন করছি যদিও তারা আল্লাহর বিরুদ্ধে অপবাদ দিচ্ছে কিন্তু তাতে আমার কী আসে যায়।

via: আমরা আল্লাহকে ভালোবাসি, আল্লাহ আমাদের ভালোবাসেন

 

যখন আল্লাহ বললেন: হে ঈসা ইবনে মরিয়ম! তুমি কি লোকদেরকে বলে দিয়েছিলে যে, আল্লাহকে ছেড়ে আমাকে ও আমার মাতাকে উপাস্য সাব্যস্ত কর? ঈসা বলবেন; আপনি পবিত্র! আমার জন্যে শোভা পায় না যে, আমি এমন কথা বলি, যা বলার কোন অধিকার আমার নেই। যদি আমি বলে থাকি, তবে আপনি অবশ্যই পরিজ্ঞাত; আপনি তো আমার মনের কথা ও জানেন এবং আমি জানি না যা আপনার মনে আছে। নিশ্চয় আপনিই অদৃশ্য বিষয়ে জ্ঞাত।

আমি তো তাদেরকে কিছুই বলিনি, শুধু সে কথাই বলেছি যা আপনি বলতে আদেশ করেছিলেন যে, তোমরা আল্লাহর দাসত্ব অবলম্বন কর যিনি আমার ও তোমাদের পালনকর্তা আমি তাদের সম্পর্কে অবগত ছিলাম যতদিন তাদের মধ্যে ছিলাম। অতঃপর যখন আপনি আমাকে লোকান্তরিত করলেন, তখন থেকে আপনিই তাদের সম্পর্কে অবগত রয়েছেন। আপনি সর্ববিষয়ে পূর্ণ পরিজ্ঞাত। ''
[সূরা মায়িদাহ:১১৬-১১৭ ]

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »