আর্কাইভ

বিএনপি ক্ষমতায় এলে বরিশালবাসীর দাবি অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়কে পুরনো নামে ফিরিয়ে আনা হবে -একান্ত সাক্ষাৎকারে সাংসদ সরোয়ার

শাহীন হাসান, বরিশাল ॥ বুধবার শিক্ষা মন্ত্রী বরিশাল বিশ্ববিদ্যায়ের আনুষ্ঠানিক যাত্রার উদ্ধোধন করেছেন। কিন্তু এতে মর্মাহত সদর আসনের সাংসদ এ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ার। বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি কার্যক্রম উদ্বোধনে অনেক ভিআইপি দাওয়াত না পাওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কার্যক্রম নিয়ে রাজনীতি চলছে বলেও অভিযোগ করেছেন অভিজ্ঞ এ রাজনীতিবিদ।

গতকাল টেলিসংলাপে এমপি সরোয়ার জানান, শহী রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের কেবিনেট সভায় বরিশালে বিশ্ববিদ্যালয় করার সিদ্ধান্ত হয় যা পরবর্তীতে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া বিএম কলেজকে বিশ্ববিদ্যালয়ে করার ঘোষণা দেন। পরবর্তীতে আমরা বুঝতে পারি ঢাকার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মত করে হচ্ছে বরিশালের বিশ্ববিদ্যালয়ের কাঠামো। তখন এ অঞ্চলের ১৫ জন সংসদ সদস্যকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছি এবং বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়কে পূর্ণাঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় করার অব্যাহত দাবির মুখে পটুয়াখালীতে এক জনসভায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া আমার নাম উচ্চরণ করেই ঘোষণা দিয়েছিলেন পূর্ণাঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের। যার কার্যক্রম শুরু হয়েছিল কিন্তু বর্তমান সরকারের শিক্ষামন্ত্রী দুর্বলভাবে ৩ বছর কার্যক্রম ঝুলিয়ে রেখে গত বুধবার উদ্বোধন করেছে। আমি দাওয়াত পাইনি এতে কোন আফসোস নেই। কিন্তু বরিশালবাসীর স্বার্থে বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ সঠিকভাবে পরিচালনার দাবি জানান তিনি।

তিনি আরো বলেন, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের উচিত ছিল পূর্বে যারা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রমে সংগ্রাম করেছে তাদের নামটুকু স্মরণ করা কিন্তু তাও করা হয়নি। তিনি আক্ষেপ করে বলেন, এ সরকার প্রজাতন্ত্রের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীকে আজকাল নিয়ন্ত্রণ করতে শুরু করেছে। যার নগ্ন বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাদের বর্তমান ক্ষমতাসীনদের খুশি করতে। আজ আমার কাছে দাওয়াত কার্ড দেওয়া হয়নি। তিনি বলেন, আগামীতে বিএনপি ক্ষমতায় এলে এ সকল ঘটনা ও বরিশালবাসীর দাবি অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়কে তার অতীত নামে ফিরিয়ে আনা হবে। ওদিকে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের এলাকার জমি অধিগ্রহণ নিয়ে দায়ের করা মামলায় ভূমি হুকুম দখল কর্মকর্তাকে ৫ দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত। গতকাল বরিশাল প্রথম যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ মোঃ আলমগীর কবির এ আদেশ দেন। আদেশে বলা হয় এক একর ৮৬ শতাংশ জমির উপর কেন অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা দেয়া হবে না সেক্ষেত্রে ৫ দিনের মধ্যে কারণ দর্শাতে হবে।

সূত্র জানায়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার মধ্যে বাবর উল্লা তালুকদার ওয়াকফ স্টেটের জমি অধিগ্রহণ সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে বাবর উল্লা তালুকদার বাদী হয়ে বরিশাল জমি হুকুম দখল কর্মকর্তা, ওয়াকফে প্রশাসক ঢাকা এবং হেমায়েত উদ্দিন ও মোফাজ্জেল তালুকদার সহ ৮ জনকে বিবাদী করে অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে একটি মামলা দায়ের করা হয়। মামলার শুনানি শেষে গতকাল বিচারক এ আদেশ প্রদান করেন।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »