আর্কাইভ

শিক্ষকের বেত্রাঘাতে মাদ্রাসা ছাত্রী আহত – মুর্মুর্ষ অবস্থায় বরিশাল হাসপাতালে ভর্তি

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ শিক্ষকের বেত্রাঘাতে গুরুতর আহত মাদ্রাসা ছাত্রীকে মুর্মুর্ষ অবস্থায় সোমবার সন্ধ্যায় বরিশাল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলার গৌরিপুর ইউনিয়নের পৈকখালী মোমিনিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার সপ্তম শ্রেনীর ছাত্রী নুরুন্নেছা আক্তার শ্রেনী কক্ষে ঠিকভাবে লিখতে না পারায় তাকে শিক্ষক মোঃ মাসুদুজ্জামান বেত দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। আহত ছাত্রীকে প্রথমে ভান্ডারিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে সোমবার সন্ধ্যায় নুরুন্নেছাকে বরিশাল শের-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়েছে।

সূত্রমতে, গত ১৮ ফেব্রুয়ারি মাদ্রাসায় ইংরেজী ক্লাশ চলাকালিন নুরুন্নেছা শ্রেনী কক্ষে যথাযথভাবে লিখতে না পারায় শিক্ষক মাসুদুজ্জামান ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে বেত্রাঘাত করে। দু’দিন জ্বরে ভোগার পর নুরুন্নেছা বিষয়টি তার পরিবারের কাছে জানায়। গত ২০ ফেব্রুয়ারি পরিবারের লোকজন নুরুন্নেছাকে ভান্ডারিয়া হাসপাতালে ভর্তি করায়। বিষয়টি নুরুন্নেসার পরিবারের পক্ষ থেকে মাদ্রাসার কর্তৃপক্ষকে জানানো হলে কর্তৃপক্ষ ওই শিক্ষার্থীর চিকিৎসার ব্যয় বাবদ শিক্ষক মাসুদুজ্জামানকে তিন হাজার টাকা প্রদানের জন্য বলে দ্বায় এড়িয়ে যায়।

এদিকে নুরুন্নেছা ভান্ডারিয়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরো অসুস্থ্য হয়ে পরেন। উপায়ন্তুর না পেয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য আজ সোমবার সন্ধ্যায় নুরুন্নেছাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ব্যাপারে ভান্ডারিয়া হাসপাতালের চিকিৎসক ডাঃ ইখতিয়ার হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, নুরুন্নেছার হাঁটুতে পানি জমে ইনফেকশন হয়েছে। ইনফেকশনটি আঘাত জনিত কারনে হয়ে থাকতে পারে। কয়েকদিন চিকিৎসার পরেও তার অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় আজ সোমবার তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত শিক্ষক মাসুদুজ্জামানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, নুরুন্নেছাকে বেত দিয়ে একটি আঘাত করা হয়েছে। অন্য কোন কারনে সে অসুস্থ্য হয়ে থাকতে পারে। তার পরেও তিনি কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত মেনে নিয়ে চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করছেন।

ছবি : আহমেদ জালাল

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

আরও দেখুন...
Close
Back to top button
Translate »