আর্কাইভ

ফের বিপর্যস্ত বরিশালের বিভিন্ন সড়ক-মহাসড়ক – নেই কোনো অগ্রগতি

শাহীন হাসান, বরিশাল ॥ প্রধান মন্ত্রীর নির্দেশের পর কোন রকম জোড়া তালি দিয়ে বরিশাল জেলার অধিকাংশ সড়কগুলো মেরামত করায় ফের বিপর্যস্ত ও মৃত্যু ফাঁদে পরিণত হয়েছে বরিশালের সড়কগুলো। যার প্রভাব গড়িয়েছে বরিশাল সিটি কর্পোরেশন প্রধান-প্রধান সড়ক থেকে শুরু করে অলিগলি পর্যন্ত। গত বছরের প্রবল বর্ষনের পর নগরীর হাসপাতাল রোড, কাশিপুর চৌমাথা, বরিশাল নগরীর তালতলি থেকে সায়েস্তাবাদ সড়কটি, পলাশপুর, লঞ্চঘাট থেকে রুপাতলি, নাজিরপুল, নথুল্লাবাদ থেকে কাশিপুর ও দোয়ারিকা-শিকারপুর ব্রীজের গোড়া পর্যন্ত। ব্রীজ শেষ হওয়ার পর থেকে আবার মাহিলার, গৌরনদী, আগৈলঝাড়া পর্যন্ত মহাসড়কটিরও একই অবস্থা দীর্ঘ প্রায় ২বছর পর্যন্ত। এর পরে প্রায় সকল সড়কেই কিছুদুর অন্তর-অন্তর গর্ত থাকায় হঠাৎ গর্তে পরে পরিবহনগুলো বড় ধরনের দূর্ঘটনায় কবলিত হচ্ছে প্রায়ই। এর বাইরে বরিশাল জেলার আওতাধীন নথুল্লাবাদ মাওয়া, রুপাতলি, পটুয়াখালী, ঝালকাঠী, নলছিটি, বাকেরগঞ্জ, কুয়াকাটা, চাঘার সহ মহাসড়কগুলোরও একই অবস্থা। তবে রাস্তা সংস্করনের দাবীতে পরিবহন শ্রমিকদের ডাকা ধর্মঘটের পর রাস্তার কিছু-কিছু অংশ রিপেয়ারিং করা হয়েছে গত বছরের ডিসেম্বর মাসের দিকে। যা পুনরায় বর্তমানে আবার গর্তাকারে রুপ নেয়ায় ফুসে উঠতে শুরু করেছে স্ব এলাকার স্থানীয়রা ও নগরবাসী। বিপরীতে বাস মালিক সমিতিও তীব্র ক্ষোভ ও হুশিয়ারি জানিয়েছেন পুনরায়। দরুনতায় শীঘ্রই ফের পরিবহন ধর্মঘটের আশংকা করা হচ্ছে।

রাস্তা-ঘাটের এসব স্বচিত্র প্রতিবেদন পত্র পত্রিকা ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়াগুলোতে একাধিকবার প্রকাশ হওয়া সত্ত্বেও কোন প্রকার স্থায়ী সমাধান করা সম্ভব হয়নি অদ্যবদি। ঈদের আগে ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তার জন্য সড়ক মেরামত করতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ আসায় সে সময় অনেকটা জোড়াতালি দিয়েও শেষবধি মেরামত করা হয়নি বরিশাল নগরী ও তার বাইরের এসব সড়ক ও মহা-সড়ক গুলো। উলে¬খিত সড়কগুলো সম্পর্কে মন্তব্য করে নথুল্লাবাদ শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, ঈদের আগে মহাসড়ক গুলোতে গাড়ি চলাচল অনুপযোগী হয়ে পড়ায় বাস মালিক সমিতির নির্দেশে বাস চলাচল বন্ধ করা দেয়া হয়েছিল।

গত বছরের ১৯ আগষ্ট বরিশাল প্রেসক্লাবে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে সংবাদকর্মীদের সড়কের বেহাল দশা সম্পর্কে জানানো হয়েছিল। এরপর ২১ আগষ্ট ১০ মিনিট পৃথকভাবে রুপাতলি ও নথুল্লাবাদ মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেন সমিতির কর্মচারী, কর্মকর্তারা, এ সময় বলা হয় ঈদের পর সড়ক মেরামত না করা হলে অনির্দিষ্ট কালের জন্য আন্দোলনের ডাক দেবে সংগঠনগুলো। আর সেই আন্দোলনের সময় ঘনিয়ে আসছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

নথুল্লাবাদ বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন জানান, বরিশাল মহাসড়কগুলোতে জোড়াতালি দিয়ে কাজ করা হয়েছে। যে কারনে তা মেরামতের ২/১ মাস পরই সাবেক অবস্থায় রুপ নিয়েছে। মেরামতকে সরকারের টাকা অপব্যয় করার একটি প্রক্রিয়া বলে মন্তব্য করেন তিনি। তবে উপরোক্ত বিষয়গুলো নিয়ে সড়ক জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীর সাথে সড়ক সংস্কার সম্পর্কে কথা বললে তিনি জানান, খুব শীঘ্রই বরিশালের মহাসড়কগুলো পুনরায় মেরামত করা হবে।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »