আর্কাইভ

গৌরনদীতে ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে এক গৃহবধূ

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ গৌরনদী পৌর এলাকার গৌরনদী ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের ডাঃ পিকে সাহার ভুল চিকিৎসায় এখন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন রিনা রানী দেবনাথ নামের এক গৃহবধূ। এ ঘটনা ওই ডায়াগনষ্টিক সেন্টার পরিচালনাকারীদের কাছে বিচার চাইলে উল্টো গৃহবধূর স্বামী পৌর এলাকার দক্ষিন পালরদী মহল্লার ব্রজেশ্বর দেবনাথকে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতিসহ প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ব্রজেশ্বর দেবনাথের দেয়া অভিযোগে জানা গেছে, তার স্ত্রী রিনা রানী দেবনাথ (৪৫) সম্প্রতি শারীরিক ভাবে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে গৌরনদী ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের ডাঃ পিকে সাহার কাছে নেয়া হয়। তার (পিকে সাহার) দেয়া ব্যবস্থাপত্র অনুযায়ী ঔষধ সেবন করে রিনা রানী আরো অসুস্থ্য হয়ে পরেন। পরবর্তীতে গৃহবধূ রিনা ডাঃ পিকে সাহার কাছে গেলে বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষার মাধ্যমে তার কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়া হয়। চিকিৎসার গ্যারান্টি দিয়ে ডাঃ পিকে সাহা গ্ল¬াক্সো ঔষধ কোম্পানীর স্থানীয় বিক্রয় প্রতিনিধি মশিউর রহমানকে দিয়ে রিনা রানীর ডান হাতে একটি ইনজেকশন পুশ করান। ভুল ইনজেকশন পুশ করায় রিনার ইনজেকশনের স্থান ফুলে যায়। পরে সেখানে একটি বড় ধরনের টিউমারের সৃষ্টি হয়। এরপর ওই ডাক্তার চারবার ব্যবস্থাপত্রে হাই এ্যান্টিবায়েটিক ঔষধ লিখে দেয়। ওই ঔষধ খেয়ে রিনার ডান হাত সম্পূর্ন ভাবে ফুলে গিয়ে টিউমারটি ফেটে যায়। ফলে রিনার ডান হাতে বড় ধরনের গর্তের সৃষ্টি হয়। ভুল চিকিৎসার কারনে রিনা রানীর অবস্থার উন্নতি না হয়ে দিনদিন অবনতি হতে থাকে। ডাঃ পিকে সাহার স্মরনাপন্ন হলে শষ্যাশয়ী রিনাকে চিকিৎসা না দিয়ে উল্টো গৌরনদী ডায়াগনষ্টিক সেন্টার কর্তৃপক্ষের ক্যাডার বাহিনী দিয়ে রিনার স্বামী ব্রজেশ্বর দেবনাথকে বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতিসহ প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়। গত এক সপ্তাহ পূর্বে রিনাকে তার স্বজনেরা বরিশাল শহরে নিয়ে ডাঃ জহুরুল ইসলাম মানিকের স্মরন্নাপন্ন হয়। তার (ডাঃ জহুরুলের) বিভিন্ন পরীক্ষা নিরিক্ষায় রিনার ক্যান্সার রোগ ধরা পরে। এ খবর গৌরনদীতে ছড়িয়ে পরলে ডাঃ পিকে সাহা গৌরনদীর চেম্বারে আসা বন্ধ করে দেন।

গৌরনদী ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের পরিচালক মোঃ নাসির উদ্দিন সেন্টারের ক্যাডার ও হুমকির অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, খুলনা থেকে ডাঃ পিকে সাহা গৌরনদীর বিভিন্নস্থানে এসে চেম্বার করতেন। সেমতে তাকে আমাদের সেন্টারেও আনা হয়েছিলো। এখন আরা তিনি আসেন না বলেও তিনি উল্লেখ করেন। তিনি আরো বলেন, আমরাতো আর ডাক্তার না। রিনা রানীকে ডাক্তার কি চিকিৎসা দিয়েছেন তা ডাক্তারই বলতে পারবেন। এ ব্যাপারে ডাঃ পিকে সাহার সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »