আর্কাইভ

বাবুগঞ্জে বিয়ের ৪ মাসের মাথায় সন্তান প্রসব করায় মামলা

বাবুগঞ্জ সংবাদদাতা ॥ কুমারী বলে গর্ভবতী কণ্যাকে বিয়ে দেওয়ার অভিযোগে স্ত্রী শ্বশুড়, শ্বাশুরি ও দুই মামা শশুড়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বাবুগঞ্জের কেদারপুর এলাকার বাসিন্দা মো. মিজানুর রহমান সোমবার বরিশালের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।

বিচারক মো. মাসুদুর রহমান বাবুগঞ্জ উপজেলার সমবায় কর্মকর্তাকে মামলাটি তদন্ত করে আদারতে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন। আসামীরা হচ্ছে, উপজেলার লোহালিয়া এলাকার বাসিন্দা বাদীর স্ত্রী লাকি আক্তার সাথী, শ্বশুড় শহর আলী হাওলাদার, শ্বাশুরি সালমা বেগম, মামা শ্বশুড় আব্দুর রহমান ও আক্তার হোসেন।

মামলাসূত্রে জানাগেছে, চলতি বছরের  ১২ মার্চ বাদী মিজানুর রহমানের সাথে লাকী আক্তার সাথীর বিয়ে হয়। বিয়ের পর স্ত্রীর শরীর খারাপ জানিয়ে প্রায়ই অভিভাবকরা চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যেত। স্বামী স্ত্রীর অসুখের কথা জিজ্ঞেস করলে তাকে এড়িয়ে যেত। ৩ আগষ্ট স্ত্রীকে শেবাচিম হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনি একটি সন্তান প্রসব করেন।

চিকিৎসক ও  মেডিক্যালের রির্পোট দেখে স্বামী জানতে পারে সন্তান আট মাস চারদিন গর্ভে থাকার পর জম্মনেয়। তবে তিনি হিসাব করে বের করেন তাদের বিয়ের বয়স চারমাস ২১ দিন। রির্পোট দেখে বুঝতে পারেন সন্তানটি তার নয়। এছাড়াও ওই সন্তানটি তার বলে প্রমান করার জন্য চলতি বছরের ৮ ফেব্রুয়ারী বিয়ের একটি জাল হলফনামা তৈরী করে আসামীরা।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »