আর্কাইভ

উজিরপুরের হারতায় ১৫২তম নৌকা বাইচ অনুষ্ঠিত

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ ধর্ম যার যার, কিন্তু আনন্দ উৎসব সবার। সেই কথাটি আবারো সত্য প্রমানিত করে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা ও আনন্দর মধ্য দিয়ে লাখো মানুষের উপস্থিতিতে গতকাল সোমবার দুপুরে বরিশালের উজিরপুরের বিল জনপদ হারতার সন্ধ্যা নদীতে ১৫২তম বার্ষিক ঐতিহ্যবাহী নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। দেড়শ বছর আগে থেকে লক্ষ্মী পূজা উপলক্ষে নিয়মিত ভাবে নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় হারতা বাজার কমিটি ও ইউনিয়ন পরিষদ এ বছর লক্ষ্মী দশরা নৌকাবাইচ আয়োজন করে।

এ বছরে ঈদুল আযহা ও পূজা একসাথে পড়ার কারণে বাইচ প্রতিযোগিতায মানুষের উপস্থিতি ছিল প্রতি বছরের তুলনায় ব্যাপক। নৌকা বাইচ উপলক্ষে হারতায় দিনব্যাপী মেলা বসে। মেলায় নানা প্রকার পশরা সাজিয়ে নৌকাবাইচ এর আয়োজনকে এনে দেয় ভিন্ন মাত্রা। গতকাল সকাল থেকে হারতা যেন ছিল উৎসবের জনপদ। নৌকাবাইচ উপভোগ করার জন্য বিভিন্ন স্থান থেকে শতশত ট্রলার, লঞ্চ ও সড়ক পথে হাজার হাজার দর্শনার্থী ভিড় জমায় হারতা বাজারে। সকাল থেকে বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত মানুষে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায় বরিশাল জেলার সবচেয়ে বড় ব্যবসায়ীক বাজার হারতা। নিরাপদে নৌকাবাইচ উপভোগ করতে ১০০ জন পুলিশ ও র‌্যাব ৮ এর বিশেষ দল বাড়তি নিরাপত্তা দিয়েছে।

প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে মাদারীপুর, ফরিদপুর, গোপালগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ৮টি বাইচ দল প্রতিযোগিতায় অংশ নেন। এর মধ্যে একটি মহিলা বাইচ দলও অংশ নিয়ে দর্শকদের মুগ্ধ করেছে। মাদারীপুরের রাজৈরের শুকলাল বাইনের দলকে পরাজিত করে একই এলাকার গৌতম ভক্ত প্রথম স্থান দখল করেন। বিজয় গৌতম ভক্তকে পুরস্কার হিসাবে ২র্র্র্১র্  রঙিন টেলিভিশন পুরস্কার প্রদান করেন। এছাড়াও বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন বরিশাল-২ আসনের সাংসদ মনিরুল ইসলাম মনি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বরিশাল পুলিশ সুপার দেবদাস ভট্রচার্য্য, সদর সার্কেল রবিউল ইসলাম, উজিরপুর উপজেলার চেয়ারম্য্না আবুল কালাম আজাদ বাদল, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন, ওসি আনোয়ার হোসেন, ইউপি চেয়ারম্যান হরেন রায়, আ’লীগ নেতা সুনিল বিশ্বাস, সিরাজুল ইসলাম প্রমূখ। ইউপি চেয়ারম্যান হরেন রায় জানিয়েছেন, বৃটিশ শাসনকাল থেকে হারতা এলাকায় নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় প্রতি বছর বাজার কমিটি ও ইউনিয়ন পরিষদের যৌথ উদ্যোগে নৌকা বাইচ অনুষ্ঠিত হয়। সব ধর্মের মানুষ এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে অনুষ্ঠানটিকে উৎসব মুখর করে তোলে। সন্ধ্যা নদীর দু’তীরে নেমেছিল মানুষের ঢল। দুর-দুরান্ত থেকে শত বিড়ম্বনা সহ্য করে হাজার হাজার মানুষ সেখানে এসেছিল নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে এবং উপভোগ করতে। হারতা বাজার সংলগ্ন এলাকার মানুষ ও স্থানীয় ব্যবসায়ীরা প্রতি বছর যেন এ দিনটির অপেক্ষায় থাকেন। উজিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ জানিয়েছেন, ঐতিহ্যবাহী নৌকাবাইচ যেন উজিরপুরের সকল ধর্মের মানুষের মাঝে সেতু বন্ধন তৈরীর একটি দিন।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »