আর্কাইভ

সোমবার বরিশালে বিএনপি’র জনসভা ভাষন দেবে খালেদা

হাসিবুল ইসলাম, বরিশাল ॥ সোমবার বিকাল ৩টায় বরিশাল বেলেস পার্র্কে (বঙ্গবন্ধু উদ্যান) বিএনপির জনসভায় ভাষন দেবেন চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। রবিবার বিকালে তিনি গুলশানস্থ দলীয় কার্যলয়ের সামনে থেকে গাড়ি যোগে রওনা হয়েছেন। এদিকে নেত্রীকে বরন করতে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে দক্ষিনাঞ্চলের নেতাকর্মীরা। নেত্রীর আগমন ও জনসভা উপলক্ষে গতকাল রবিবার সকাল  ১০টায় সার্কিট হাউজে সংবাদ সম্মেলন করেছে ১৮দলীয় জোটের নেতাকর্মীরা। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান বলেন, সরকারের সর্বাঙ্গে পচন ধরেছে। প্রশাসন ভেঙে পড়েছে। অপদার্থ এই সরকারকে দিয়ে জনগণের সংকট দূর করা সম্ভব নয়। তাই বুলেটের চেয়ে শক্তিশালী ব্যালট প্রয়োগ করে তাদের সরাতে হবে। বরিশালে ১৮ দলীয় জোটের সোমবারের জনসভা বৃহত্তর বরিশাল পুরোটাই একটি মাঠে পরিণত হবে।

বরিশালে খালেদা জিয়ার প্রতিটি মহাসমাবেশে গণজাগরণ ঘটে। তাই এবারের মহাসমাবেশেও গণজাগরণ ঘটবে। খালেদা জিয়ার মুখ থেকে নিজেদের মনের কথা শুনতেই লাখ লাখ মানুষের সমাগম ঘটবে সোমবার  জনসভায়।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর, সাংগঠনিক সম্পাদক মজিবর রহমান সারোয়ার, মেজর (অব) হাফিজউদ্দিন বীরবিক্রম, ভাইস চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন চৌধুরী, এনডিপির চেয়ারম্যান খন্দকার গোলাম মোর্তজা, বরিশাল জেলা বিএনপির সভাপতি আহসান হাবিব কামাল, সাধারন সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন ও বরিশাল জামায়াতের আমীর অ্যাডভোকেট মুয়াযযম হোসাইন হেলাল প্রমুখ।

সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তারা আরো বলেন,  খালেদা জিয়ার সমাবেশের বক্তব্য শুনতে শুধু বেলস পার্ক মাঠই নয়, আনাচে-কানাচেও থাকবে কয়েক লাখ মানুষ। এ যাবৎ বরিশালে যতোগুলো সমাবেশ তারা করেছে, সেগুলো মহাসমাবেশে পরিণত হয়েছে। এটি বিএনপির সাংগঠনিক শক্তির কারণে হয়নি, বরং মানুষের নিজেদের প্রত্যাশা থেকে  এসেছে। এসময় নোমান আরো বলেন,  নিরাপত্তার জন্য প্রশাসনের কাছে সাহায্য চেয়েছি। তারা সাহায্য-সহযোগিতা করছে। আর আওয়ামী লীগও  সাহায্য করবে বলেছে। আশা করি, তারা কথা ও কাজের মিল রাখবে। তাদের লোকজনকে আসতে কোনো বাধা না দিলেই সাহায্য  হবে বলে জানান তিনি।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »