আর্কাইভ

গৌরনদীতে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ভবন নির্মান কাজের সাইন বোর্ড টাঙাতে দেয়নি দখলদাররা

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ বরিশালের গৌরনদী উপজেলা হাসপাতালের সম্মুখে (আশোকাঠী) সরকারী সম্পত্তির ওপর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাইনবোর্র্ড টাঙ্গানো নিয়ে বিকেলে বিক্ষোভ করেছে দখলকারীরা। উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশ মোতাবেক ভূমি অফিসের কয়েকজন কর্মকর্তা ও মুক্তিযোদ্ধারা সাইনবোর্ড নিয়ে আশোকাঠি বাসষ্ট্যান্ডে পৌছলে বিক্ষোভ দেখা দেয়।

জানাগেছে, হাসপাতালের সামনের সম্পত্তি জবরদখল করে পাকা ভবনের কাজ করছিলেন স্থানীয় কতিপয় যুবলীগ নেতা। অভিয়োগ পাওয়ার পর  মঙ্গলবার দুপুরে কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরী। এঘটনায় দখলদারদের বিরুদ্ধে গৌরনদী থানায় মামলা দায়ের করে ভূমি অফিস।

স্থানীয়রা অভিযোগ করেন, আশোকাঠি মৌজার এস এ ২২৪নং খতিয়ানের ১২৪,২১৬,২২৬,২২৭ ও ২২৮ নং দাগের সরকারী সম্পত্তি (ভিপি তালিকা ভুক্ত) গৌরনদী পৌর সভার প্যানেল মেয়র ও যুবলীগ নেতা এস.এম ফিরোজ রহমান, সাবেক কাউন্সিলর ও যুবলীগ নেতা জামাল হোসেন বাচ্চু এবং তাদের সহযোগীরা ওই সম্পত্তি জবর দখল করেন। ইতোমধ্যে দখল করা সম্পত্তির ওপর পাকা ভবন নির্মানের কাজ শুরু করেন সোহেল সরদার নামক এক যুবলীগ নেতা। অন্যরাও ভবন তৈরীর জন্য ইট বালু জমা করেন। এ ব্যাপারে ব্যবসায়ী কাবুল সরদার কয়েকদিন আগে থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়ার পর পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়। পুলিশের বাঁধাকে উপেক্ষা করে প্রভাবশালীরা পাকা ভবন নির্মান কাজ অব্যাহত রাখেন। উপায়অন্তুর না পেয়ে ব্যবসায়ী কাবুল সরদার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দায়েরের পর ইউএনও দিদারে আলম মোহাম্মদ মাকসুদ চৌধুরী মঙ্গলবার দুপুরে ঘটনাস্থলে এসে জবরদখল করে নির্মানাধীন পাকা ভবনের কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন। এ ব্যাপারে নির্বাহী কর্মকর্তার সম্মুখে বসে কথা হয় প্যানেল মেয়র ফিরোজ, যুবলীগ নেতা জামাল হোসেন বাচ্চু সহ অন্যদের সাথে। তারা জানান, আমরা সরকারী সম্পত্তি জবরদখল করিনি। আমরা আমাদের বৈধ সম্পত্তির ওপর দোকানপাট তৈরী করছি। সরকার আমাদের বৈধ সম্পত্তি ভিপি তালিকাভুক্ত করে আমাদেরকে হয়রানী করছে। এব্যাপারে মাহিলারা ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা মোঃ শফিজুল ইসলাম গতকাল বাদী হয়ে গৌরনদী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »