আর্কাইভ

গৌরনদী-আগৈলঝাড়া সড়কের বাইপাস সড়কে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ

আগৈলঝাড়া সংবাদদাতা ॥ নির্মানাধীন বরিশালের গৌরনদী-আগৈলঝাড়া-পয়সারহাট মহাসড়কের বাইপাস সড়কের বরাদ্দকৃত সরকারি অর্থ লুটপাট করে নিচ্ছে একশ্রেনীর সুবিধাভোগী ও সংশ্লিষ্ট অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। নিচু জমিকে উঁচু ও সড়ক নির্মানস্থানে ভূয়া ঘরবাড়ি ও গাছপালা দেখিয়ে, এমনকি সরকার অধিগ্রহন করেনি এমন জায়গায়ও বিভিন্ন সহায় সম্পদ দেখিয়ে সরকারের লক্ষ লক্ষ টাকা লুটপাটের মহাউৎসবে নেমেছেন কর্মকর্তা, সুবিধাভোগী ও দালালেরা। এ ঘটনায় এলাকাবাসী সংশ্লিষ্ট বিভাগের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ দায়ের করেও কোন সুফল পাননি।

বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বাইপাস সড়কের বুধার মৌজার ৩১৪নং খতিয়ানের ৬৬০নং দাগে ১শতাংশ ও ৬৫৭নং দাগে ২৭শতকসহ মোট ২৮ শতক জমি অধিগ্রহণ করে সরকার। ওই জমির মালিক আগৈলঝাড়া এলজিইডি বিভাগে কর্মরত উপ-সহকারি সতীশ চন্দ্র বাড়ৈ। নিচু জমিকে উঁচু জমি ও সড়কে ঘর দেখিয়ে দেখিয়ে অসাধু কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে তাদের যোগসাজশে তিনি ওই জমির বিপরীতে সরকারের কাছ থেকে ৭ লাখ ৬৭ হাজার ৭৯৩ টাকা অবৈধভাবে উত্তোলন করে নিয়েছেন। উত্তোলনকৃত টাকার একটি বড় অংশ সংশ্লিষ্ট বিভাগের অসাধু কর্মকর্তারা ভাগ-বাটোয়ারা করে নিয়েছেন। এ ঘটনায় স্থানীয়রা সংশ্লিষ্ট বিভাগে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে ঘটনাটি নিয়ে তোলপাড়ের সৃষ্টি হয়। সরেজমিনে দেখা গেছে, অধিগ্রহণকৃত সতীশ চন্দ্রের জমিতে কোন ঘরের অস্তিত্ব ছিলোনা। অধিগ্রহণকৃত জমিটি অত্যন্ত নিচু জমি এবং পুকুরের একটি অংশ। এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপদ বিভাগের এসও শিশির কুমার মোড়ল জানান, সংশ্লিষ্ট অধিগ্রহণের কাজটি করেছে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়। ফলে এটি আমাদের একতিয়ারের বাইরে হওয়ায় এব্যাপারে আমরা দেখেও কিছু করতে পারছিনা।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »