আর্কাইভ

আগৈলঝাড়ায় জামায়াতের গোপন বৈঠক এলাকায় আতংক

তপন বসু, আগৈলঝাড়া ॥  হেফাজতে ইসলামের ১৩ দফা দাবি বাস্তবায়ন করতে আগামী ৫মে ঢাকা অচল করাসহ দেশে বড় ধরনের নাশকতার পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে বলে একটি গোয়েন্দা সূত্র দাবি করেছেন। আর তাদের সাথে থাকবে জামায়াত-শিবিরের প্রশিক্ষিত সশস্ত্র ক্যাডাররা। ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে দেশের বিভিন্নস্থানে জামায়াতের ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা প্রশিক্ষিত কর্মীদের একত্রিত করণের কাজ। তারই ধারাবাহিকতায় বরিশালের সংখ্যালঘু অধ্যুষিত আগৈলঝাড়া উপজেলার একটি নিভৃত পল্লীতে গত কয়েকদিন ধরে রাতের আধাঁরে চলছে জামায়াত-শিবিরের গোপন বৈঠক। স্থানীয়দের মধ্যে এ বৈঠকের খবর ছড়িয়ে পরার পর পুরো উপজেলা জুড়ে বিশেষ করে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মাঝে চরম আতংক দেখা দিয়েছে। এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে ইতোমধ্যে এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগও দেয়া হয়েছে।

আগৈলঝাড়া উপজেলার বাকাল গ্রামের জনৈক জাকির হোসেন খানসহ একাধিক গ্রামবাসীরা অভিযোগ করেন, ওই গ্রামের মৃত মফিজদ্দিন সরদারের কন্যার সাথে খুলনার পাইকগাছা উপজেলার কৃষ্ণনগরের বাসিন্দা মৃত মোহাম্মদ গাজীর পুত্র আব্দুল গাফ্ফার গাজীর কয়েক বছর পূর্বে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই গাফ্ফার ঘর জামাই হিসেবে বাকাল গ্রামে বসবাস শুরু করেন। শীর্ষ যুদ্ধাপরাধী দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর ফাঁসির রায় ঘোষণার পর থেকে গাফ্ফার জামায়াতের সংগঠনের সাথে প্রকাশ্যে মিলিত হয়ে নিজ বাড়িতে রাতের আধাঁরে অপরিচিত লোকজনদের নিয়ে গোপন বৈঠক শুরু করে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গাফ্ফার খুলনায় থাকাকালীন সময় থেকে জামায়াতের রাজনীতির সাথে গভীর ভাবে জড়িয়ে রয়েছেন। প্রায়ই সে নিজ বাড়ি (বাকাল) থেকে গাঁ ঢাকা দিয়ে ১০/১৫ দিন অন্যত্র থেকে পূর্ণরায় ফিরে আসেন। অতিসম্প্রতি গভীর রাতে বিভিন্ন এলাকা থেকে তার বাড়িতে মটরসাইকেলযোগে অপরিচিত লোকজনের যাতায়াতের পর এলাকার শান্তিপ্রিয় লোকজনের মধ্যে সন্দেহ আরো বেড়ে যায়। এ ব্যাপারে গ্রামবাসী তার কাছে জানতে চাইলে তিনি তাদের সাথে অসৌজন্যমূলক আচারন করেন। উপায়অন্তুর না পেয়ে আতংকিত এলাকাবাসির পক্ষ থেকে জনৈক জাকির হোসেন খান বৃহস্পতিবার আগৈলঝাড়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

আগৈলঝাড়া থানার ওসি মোঃ সাজ্জাদ হোসেন জানান, এলাকাবাসির অভিযোগের ব্যাপারে পুলিশের কঠোর নজরদারি রয়েছে। আইনের চোখ ফাঁকি দিয়ে কেহই পার পেতে পারেনি বলেও তিনি উল্লেখ করেন। অভিযোগ অস্বীকার করে গাফ্ফার গাজী বলেন, রাজনীতি করার অধিকার সবারই আছে। তবে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ আনা হয়েছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »