আর্কাইভ

নারীরা এখন আর পিছিয়ে নেই : আট নারী নেত্রীর লড়াই

বিশেষ প্রতিনিধি ॥  বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের (বিসিসি) নির্বাচনে সংরক্ষিত ১০টি ওয়ার্ডের বাহিরেও সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে পুরুষদের সাথে লড়াই করতে কোমড় বেঁধে মাঠে নেমেছেন আটজন নারী নেত্রী প্রার্থীরা। এদেরমধ্যে একাধিক প্রার্থী গত নির্বাচনে পুরুষ প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থীকে পরাজিত করে সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছিলেন।
সূত্রমতে, ৩০টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৮টি ওয়ার্ডে পুরুষ প্রার্থীদের সাথে প্রতিদ্বন্ধীতা করতে মনোনয়নপত্র দাখিল করে কোমড় বেঁধে মাঠে নেমেছেন ৮ জন নারী প্রার্থীরা। এদের মধ্যে বিগতদিনে চার জন নারী পুরুষ প্রার্থীদের পরাজিত করে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছিলেন। একজন গত নির্বাচনে কাউন্সিলর নির্বাচিত হওয়ার পর কাউন্সিলদের ভোটে প্যানেল মেয়র পর্যন্ত নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি হলেন বিএনপি নেত্রী আয়শা তৌহিদা লুনা। এবার তিনি ১১নং ওয়ার্ড থেকে প্রতিদ্বন্ধীতা করছেন। এ ওয়ার্ডে দীর্ঘদিন যাবৎ কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়ে আসছেন তার ভাই বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সফিকুল আলম গুলজার। এবার গুলজার নির্বাচনে অংশগ্রহন করছেন না। গুলজারের অপর ভাই দু’বারের নির্বাচিত কাউন্সিলর সহিদুল আলম নাসির ১৪নং ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর প্রার্থী হয়েছেন, সেখানেও সরাসরি মোকাবেলায় নেমেছেন নারী প্রার্থী সাহিনা পারভীন। তিনি তৃতীয় বারের বিজয়ী নাসিরকে পরাজিত করতে কোমড় বেঁধে মাঠে নেমেছেন। ১৫নং ওয়ার্ডে লড়াই করছেন কামরুন নাহার সুইটি। সিটি কর্পোরেশনের প্রথম নির্বাচনে তিনি সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর নির্বাচিত হন। ১৬নং ওয়ার্ডে প্রার্থী হয়েছেন সাবেক কাউন্সিলর রুবিনা আক্তার। ২নং ওয়ার্ডে নাছিমা নাজনীন ও ৭নং ওয়ার্ডে প্রার্থী হয়েছেন নারীনেত্রী এবং সাবেক কাউন্সিলর নিগার সুলতানা হনুফা। সিটি কর্পোরেশনের প্রথম নির্বাচনে তিনি ওই ওয়ার্ড থেকেই পুরুষ প্রার্থীদের পরাজিত করে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছিলেন। ২৬নং ওয়ার্ডে নাজনীন আক্তার, ২৫নং ওয়ার্ডে শাহানা জিয়া মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »