আর্কাইভ

গৌরনদীতে কালভার্ট বন্ধ করে রাখায় দু’গ্রামের শতাধিক পরিবার পানিবন্ধী

স্টাফ রিপোর্টার ॥  স্থানীয় প্রভাবশালী একব্যক্তি কর্তৃক জবরদখল করে সরকারি কালভার্ট বন্ধ করে বাড়ি নির্মান করায় গত ১৪দিন থেকে দুটি গ্রামের শতাধিক পরিবার পানিবন্ধী হয়ে পরেছেন। ভুক্তভোগীরা পানিবন্ধীর কবল থেকে মুক্তিপেতে আজ বুধবার সকালে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের মাধ্যমে জেলা প্রশাসকসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত আবেদন করেছেন। ঘটনাটি বরিশালের গৌরনদী উপজেলার সরিকল ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড মহিষা ও সাকোকাঠী গ্রামের।

ভুক্তভোগী শাহজাহান হাওলাদার, ইউপি সদস্য সান্টু হাওলাদার, আলতাফ হোসেনসহ প্রায় অর্ধশতাধিক ব্যক্তির দেয়া লিখিত অভিযোগে জানা গেছে, মহিষা ও সাকোকাঠী গ্রামের প্রায় এক’শ একর জমির পানি নিস্কাশনের জন্য উত্তর সাকোকাঠী গ্রামের জনৈক খবির উদ্দিনের বাড়ির পার্শ্বে এলজিইডির নির্মানাধীন পাকা সড়কের মধ্যদিয়ে একটি পুরাতন সরকারি কালভার্ট রয়েছে। গত ১৬ মে ঘূর্ণিঝড় মহাসেনের শুরু থেকে প্রবলবর্ষণ শুরু হওয়ার পর থেকে অদ্যবর্ধি স্থানীয় প্রভাবশালী ফরিদ উদ্দিন অজ্ঞাত কারনে ওই কালভার্টের মুখটি বন্ধ করে রাখে। এছাড়াও ফরিদ কালভার্টের মুখে বাড়ি নির্মান করায় বৃষ্টির পানি নিস্কাসনে বাঁধাগ্রস্থ হচ্ছে। ফলে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়ে মহিষা ও সাকোকাঠী গ্রাম দুটির প্রায় শতাধিক পরিবার পানিবন্ধী হওয়ার পাশাপাশি ওইসব এলাকার ফসলের ব্যাপক ক্ষতিসাধিত হচ্ছে।

স্থানীয়রা কালভার্টের বাঁধ অপসারনের জন্য একাধিকবার গেলেও প্রভাবশালী ফরিদ ও তার সহযোগীদের হুমকির মুখে তারা স্থান ত্যাগ করতে বাধ্য হন। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান থেকে শুরু করে গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গের বাঁধা উপেক্ষা করে ফরিদ উদ্দিন তার ক্ষমতার প্রভাব দেখিয়ে আসছে। উপায়অন্তুর না পেয়ে অসহায় গ্রামবাসী পানিবন্ধীর কবল থেকে মুক্তিপেতে গতকাল বুধবার সকালে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের মাধ্যমে জেলা প্রশাসকসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত আবেদন করেছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »