আর্কাইভ

বরিশাল সিটি নির্বাচনে অনিয়মই যেন নিয়ম

এনায়েত হোসেন মুন্না, বরিশাল থেকে ফিরে ॥  সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে প্রার্থীদের আচরণবিধি লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে শাস্তি কিংবা জরিমানার বিধান থাকা সত্বেও বরিশালে এর কোনো কিছুরই প্রভাব পড়েনি। ফলে প্রার্থী ও তাদের সমর্থকেরা প্রকাশ্যেই আচরণবিধি লঙ্ঘন করে চলায় এখানে অনিয়মই যেন এখন নিয়মে পরিনত হয়েছে।

এক প্রার্থী অপর প্রার্থীর বিরুদ্ধে অশ্লীল মন্তব্য, সমর্থকেরা মটরসাইকেল কিংবা পিকআপের বহন নিয়ে প্রকাশ্যেই নগরীতে মিছিল করে চললেও এসব দেখার যেন কেউ নেই। ইতোমধ্যে আচরণবিধি লঙ্ঘনের পরিপ্রেক্ষিতে বিএনপি সমর্থিত জাতীয়তাবাদী নাগরিক পরিষদের প্রার্থী আহসান হাবিব কামালের বিরুদ্ধে রিটানিং অফিসারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ১৪ দল সমর্থিত সম্মিলিত নাগরিক কমিটির প্রার্থীর শওকত হোসেন হিরনের এজেন্ট এ্যাডভোকেট কেবিএস আহম্মেদ কবির।

লিখিত বক্তব্যে তিনি উল্লেখ্য করেন, আহসান হাবিব কামালের প্রধান নির্বাচনী সমন্বয়কারী মহানগর বিএনপির সভাপতি মজিবর রহমান সরোয়ার-এমপি প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী শওকত হোসেন হিরনকে প্রকাশ্যে নাস্তিক বলে বেড়াচ্ছেন। এছাড়া কামাল চার কালার পোস্টার ছাঁপিয়েছেন। শওকত হোসেন হিরনের নির্বাচনী দাপ্তরিক সমন্বয়কারী এ্যাডভোকেট লস্কর নূরুল হক অভিযোগ করে বলেন, প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী আহসান হাবিব কামালের সমর্থকেরা ইতোমধ্যে মটরসাইকেল ও পিকআপ বহর নিয়ে নগরীতে প্রকাশ্যে আনারস মার্কার মিছিল করেছে। এসব কিছু মিলিয়ে রিটানিং অফিসারের কাছে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ দেয়া সত্বেও এখন পর্যন্ত কার্যকর কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

তিনি আরো বলেন, নগরীর ৪নং ওয়ার্ডসহ বিভিন্ন এলাকায় আহসান হাবিব কামালের নির্বাচনী ব্যানারে সদর আসনের এমপি ও মহানগর বিএনপির সভাপতি মজিবুর রহমান সরোয়ারের ছবি ছাঁপানো হয়েছে। যা নির্বাচনী আচরণ বিধির লঙ্ঘন।

এ ব্যাপারে রিটানিং অফিসার মোঃ মুজিবুর রহমান জানান, প্রার্থীদের নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন সংক্রান্ত অপরাধ প্রতিরোধ সাতজন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের নেতৃত্বে সাতটি ভিজিলেন্স টিম ৩০টি ওয়ার্ডে কাজ করছে। কোনো প্রার্থী আচরণবিধি লঙ্ঘন করলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ভিজিলেন্স টিমকে সব ধরণের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »