আর্কাইভ

সিটি নির্বাচন ॥ বরিশালে হিরণের ২৩ দফা ইশতেহার ঘোষণা

বিশেষ প্রতিনিধি ॥বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের (বিসিসি) নির্বাচনে ১৪ দল সমর্থিত সম্মিলিত নাগরিক কমিটি মনোনীত মেয়র প্রার্থী আলহাজ্ব শওকত হোসেন হিরণ আজ মঙ্গলবার বিকেলে ২৩ দফা নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছেন। নগরীর অশ্বিনী কুমার টাউন হলে সাংবাদিকদের সম্মুখে আনুষ্ঠানিকভাবে এ ইশতেহার ঘোষণা করেন হিরণ। ইশতেহার ঘোষণাকালে হিরণ বলেন, ফের নির্বাচিত হলে তিনি বরিশাল নগরীকে দেশের মধ্যে শ্রেষ্ঠ নগরীতে রূপ দেবেন। এসময় তিনি বিগত দিনে নগরীর যেসব উন্নয়ন করেছেন তা তুলে ধরেন। তিনি তার অসামাপ্ত কাজ সমাপ্ত করার জন্য তার টেলিভিশন মার্কাকে আরেকবার নির্বাচিত করার জন্য নগরীর ভোটারদের কাছে দাবি করেন। সম্মিলিত নাগরিক কমিটির আহবায়ক শিক্ষাবিদ প্রফেসর মোঃ হানিফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য আলহাজ্ব আমীর হোসেন আমু-এমপি, তোফায়েল আহমেদ-এমপি, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাবেক চীফ হুইপ ও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ, এ্যাডভোকেট তালুকদার মোঃ ইউনুস-এমপি, সৈয়দ মনিরুল ইসলাম মনি-এমপি, অগ্রনী ব্যাংকের পরিচালক এ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি পঙ্কজ দেবনাথ প্রমুখ।

 

স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মামুনের সংবাদ সম্মেলন

সিটি কর্পোরেশনের স্বতন্ত্র মেয়র পদপ্রার্থী মাহমুদুল হক খান মামুন গতকাল মঙ্গলবার সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে তার নির্বাচনী ইশতেহারের নামে মহাজোট সমর্থিত মেয়র প্রার্থী শওকত হোসেন হিরনের বিরুদ্ধে বিষোদগার করেছেন। বরিশাল প্রেসক্লাবে বেলা ১১টায় সাংবাদিক সম্মেলনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মাহমুদুল হক খান মামুন অভিযোগ করে বলেন, তার জনপ্রিয়তায় ইর্শ্বান্বিত হয়ে মহাজোট সমর্থিত মেয়র প্রার্থী শওকত হোসেন হিরন হেয় প্রতিপন্ন ও আত্মসম্মানে বিভিন্নভাবে আঘাত করছেন। লিখিত বক্তব্যে মামুন বলেন, শওকত হোসেন হিরন প্রশাসন ও তার সমর্থক দ্বারা দোয়াতকলম মার্কার কর্মীদেরকে বিভিন্নভাবে হয়রানী, শারিরীক নির্যাতন, মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে দিচ্ছে। তিনি তার সমর্থক গ্রেফতারকৃত ১৫ নেতা-কর্মীর মুক্তির দাবি করেন। এছাড়াও তিনি বলেন, বরিশালবাসী ১৮ দল ও ১৪ দলের যাতাকল থেকে মুক্তি চায়। এ জন্য এবার নগরবাসী স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী হিসেবে আমাকেই নির্বাচিত করবেন বলে আমি আশা করছি। সাংবাদিক সম্মেলনে মেয়র প্রার্থী মাহমুদুল হক খান মামুন তার নির্বাচনী ইশতেহারে উল্লেখ করেন, তিনি মেয়র নির্বাচিত হতে পারলে সকল অবিচার, অন্যায়, উশৃংখলা, বেহায়াপনা, শিক্ষক নির্যাতন, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের ধ্বংসকরণ, লুটপাট, জমি দখল ইত্যাদির বিরুদ্ধে সজাগ থেকে নগরবাসীর সেবা করে যাবেন।

হিরণকে নগর সৌন্দর্যবর্ধন কমিটির সমর্থন

বরিশাল নগরীর উন্নয়ন অব্যাহত রাখার স্বার্থে এবার ১৪ দল সমর্থিত সম্মিলিত নাগরিক কমিটির মেয়র পদপ্রার্থী আলহাজ্ব শওকত হোসেন হিরনকে সমর্থন দিয়েছেন নগর সৌন্দর্যবর্ধন কমিটির নেতৃবৃন্দরা। গতকাল মঙ্গলবার কমিটির আহবায়ক অধ্যক্ষ মোঃ আব্দুর রশিদ খান জনকন্ঠকে জানান, সিটি কর্পোরেশনের সদ্যবিদায়ী মেয়র ও মেয়র পদপ্রার্থী আলহাজ্ব শওকত হোসেন হিরণ তাদের সুপারিশের আলোকে নগরীতে রোড ডিভাইডারসহ চার লেন বিশিষ্ট সড়ক নির্মান, অসংখ্য সুদৃশ্য পার্ক, উদ্যান ও বেশকিছু ওয়ার্কওয়ে, রাস্তায় ফুটপাত, দপদপিয়া থেকে তালতলী পর্যন্ত রিং রোড, বাইপাস সড়ক, নগর ভবনকে আধুনিক, নগরবাসীর সুবিধার্থে চারটি জোনাল ভবন নির্মান পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করেছেন কয়েকটি বাস্তবায়নের শেষপ্রান্তে। এছাড়াও সৌন্দর্য বৃদ্ধি করনে বিবির পুকুর, জেলা পরিষদ পুকুরসহ নগরের বেশকটি পুকুর নান্দনিক করা হয়েছে। ফলে বরিশাল মহানগরী আজ তিলোতমা ও নান্দনিক হয়েছে। ফলশ্র“তিতে আধুনিক নগর পরিকল্পনার পূর্ন বাস্তবায়ন ও অসমাপ্ত কাজ বাস্তবায়নের স্বার্থে তারা শওকত হোসেন হিরণকে সমর্থন করেছেন। ইতোমধ্যে তিনি (আব্দুর রশিদ খান)সহ কমিটির সদস্য শিক্ষক আমজাদ হোসেন, ডাঃ জাকির হোসেন, পরিবেশবিদ কাজী এনায়েত হোসেন শিবলু, বীর মুক্তিযোদ্ধা মহিউদ্দিন মানিক-বীর প্রতিক, চেম্বার অব কর্মাসের সভাপতি সাইদুর রহমান রিন্টু হিরণের টেলিভিশন মার্কার সমর্থনে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় গণসংযোগ অব্যাহত রেখেছেন বলেও উল্লেখ করেন।

 

নির্বাচনী মাঠে ডিজিটাল চেয়ারম্যান

সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদপ্রার্থী হিরণের পক্ষে গণসংযোগসহ ভোট প্রার্থনায় গত দু’দিন থেকে নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন দক্ষিণাঞ্চলের একমাত্র ডিজিটাল ইউপি চেয়ারম্যানখ্যাত গৌরনদী উপজেলার মাহিলাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ডের আহবায়ক সৈকত গুহ পিকলু। তিনি পরিষদের সদস্য ও সন্তান কমান্ডের নেতৃবৃন্দদের নিয়ে ১৪ দল সমর্থিত মেয়র পদপ্রার্থী আলহাজ্ব শওকত হোসেন হিরনের টেলিভিশন মার্কার সমর্থনে ভোট প্রার্থণা করে বেড়াচ্ছেন। অপরদিকে ১৮ দল সমর্থিত মেয়র পদপ্রার্থী আহসান হাবিব কামালের আনারস মার্কার সমর্থনে দু’দিন থেকে গণসংযোগ অব্যাহত রেখেছেন বরিশাল জেলা উত্তর যুবদলের সাধারন সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রনেতা বদিউজ্জামান মিন্টু। তার নেতৃত্বে নেতা-কর্মীরা দলীয় প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন।

 

হিরন পত্নীর বিরামহীন প্রচারণা

স্বামী সদ্য বিদায়ী সিটি মেয়র আলহাজ্ব শওকত হোসেন হিরণের ব্যক্তি ইমেজকে কাজে লাগিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ছুটে চলছেন হিরন পত্নী ও নারীনেত্রী জেবুন্নেছা আফরোজ। প্রতিদিন ভোরের আলো ফোটার সাথে সাথেই তিনি বেড়িয়ে পরেন গণসংযোগে। পাড়া-মহল্লার অলি-গলিতে ভোটারদের বাসা-বাড়ি থেকে শুরু করে অতীতের ন্যায় তিনি নিজেই গিয়ে উপস্থিত হন ভোটারদের রান্নাঘর পর্যন্ত। ভোটারদের কাছে তুলে ধরেন তার স্বামী হিরণের সময়কার উন্নয়নের নানাচিত্র। নারীনেত্রী জেবুন্নেছা আফরোজের বিরামহীন প্রচার-প্রচারনায় সাধারন ভোটারদের মাঝে ব্যাপক সারা ফেলেছে। নারী ভোটার থেকে শুরু করে নতুন মুখের ৩১ হাজার তরুণ ভোটাররা হিরন পত্নী জেবুন্নেছা আফরোজের প্রচার-প্রচারণায় আকৃষ্ট হয়ে হিরণের টেলিভিশন মার্কায় ভোট দেয়ার জন্য ঐক্যবদ্ধ হয়েছেন। ফলশ্র“তিতে প্রতিদিনই ওইসব ভোটাররা জেবুন্নেছা আফরোজের সাথে প্রচার-প্রচারনায় অংশগ্রহন করছেন। প্রায় ৬০ বর্গ কিলোমিটারের এ নগরীতে গত নির্বাচনে ভোটার ছিল এক লাখ ৭৯ হাজার ৩৯৩ জন। এবার ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ১০ হাজার ৪৮৩ জন। ভোটার বেড়েছে ৩১ হাজার ৯০ জন। নারী ও তরুণ প্রজন্মের ভোটাররা হিরণের উন্নয়ন কর্মকান্ডের পাশাপাশি সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে মুগ্ধ হয়ে তাকেই ভোট দেয়ার অঙ্গীকার করেছেন বলে জানিয়েছেন নারীনেত্রী জেবুন্নেছা আফরোজ।

 

এস.আই ক্লোজড

বরিশাল মেট্রোপলিটন বিমান বন্দর থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) খন্দকার আবুল খায়েরকে পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে। পুলিশ কমিশনার মোঃ শামসুদ্দিন বলেন, প্রশাসনিক কারণে থানা থেকে তাকে পুলিশ লাইনে ক্লোজড করা হয়েছে। তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে পুলিশের একাধিক সূত্রে জানা গেছে, সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপির প্রার্থী আহসান হাবিব কামালের পক্ষে কাজ করার অভিযোগে এসআই আবুল খায়েরকে ক্লোজ করা হয়েছে।

দশ ধরনের যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা

সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন উপলক্ষ্যে নগরীতে দশ ধরনের যানবাহন চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশ। আজ ১২ জুন রাত ১২টা থেকে মোটরসাইকেল ও আগামী ১৪ জুন রাত ১২টার পর থেকে আরো নয় ধরনের যান চলাচল বন্ধ থাকার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (দক্ষিণ) এটিএম মুজাহিদুল ইসলাম জানান, নির্বাচন উপলক্ষ্যে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে নির্বাচন কমিশনের অনুরোধে ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে সোমবার রাতে এ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, আজ ১২ জুন রাত ১২টা থেকে আগামী ১৫ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত সিটি কর্পোরেশন এলাকায় মোটরসাইকেল চলাচল বন্ধ থাকবে। এছাড়া আগামী ১৪ জুন রাত ১২টা থেকে ১৫ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত বেবী ট্যাক্সি, টেক্সিক্যাব, ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা, মাইক্রোবাস, জিপ, বাস, পিকআপ ভ্যান, ট্রাক ও টেম্পো চলাচল বন্ধ থাকবে। তবে রিটার্নিং অফিসারের দেয়া বিশেষ পরিচয়পত্র ধারণকারী প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী, তাদের এজেন্ট ও দেশী-বিদেশী পর্যবেক্ষকদের ক্ষেত্রে এ নিষেধাজ্ঞা শিথিল থাকবে। সংবাদ সংগ্রহের জন্য নিয়োজিত দেশী-বিদেশী সংবাদ কর্মী, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, নির্বাচনী কাজে নিয়োজিত কর্মকর্তা-কর্মচারী ও নির্বাচনের বৈধ পরিদর্শকদের যানবাহন এ নিষেধাজ্ঞার আওতামুক্ত থাকবে। এছাড়াও দমকল বাহিনী, এ্যাম্বুলেন্সসহ কিছু জরুরি প্রয়োজনীয় গাড়ির ব্যাপারেরও এ নিষেধাজ্ঞা শিথিল থাকাবে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »