আর্কাইভ

বরিশাল পলিটেকনিকে ছাত্রদলের দু’গ্র“পের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি ॥  বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের সদ্য নির্বাচিত মেয়র আহসান হাবিব কামালকে অভিনন্দন জানিয়ে বের করা মিছিলে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রদলের দু’গ্র“পের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। আজ সোমবার দুপুরে বরিশাল পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট ক্যাম্পাসে ছাত্রদলের দু’গ্র“পের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার সময় পুরো ক্যাম্পাসে আতংক ছড়িয়ে পরে। খবর পেয়ে র‌্যাব ও পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্ত্রিতি নিয়ন্ত্রনে আনায় বড় ধরনের কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষার্থী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, দুপুর সাড়ে বারোটার দিকে মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সদর আসনের সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ারের সমর্থক ছাত্রদল নেতা সুজন হাওলাদার বাবুর নেতৃত্বে সদ্য নির্বাচিত মেয়র আহসান হাবিব কামালকে অভিনন্দন জানিয়ে ক্যাম্পাসে মিছিল বের করে ছাত্রদলের একাংশের নেতা-কর্মীরা। এসময় আহসান হাবিব কামালের সমর্থক ছাত্রদল নেতা মাইনুল ইসলাম রাজিবের নেতৃত্বে অপর অংশের ছাত্রদল নেতা-কর্মীরা মিছিলে বাঁধা দেয়। এ নিয়ে উভয় গ্র“পের মধ্যে বাকবিতন্ডার একপর্যায়ে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। প্রায় আধাঘন্টাব্যাপী ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় পুরো ক্যাম্পাসে আতংক ছড়িয়ে পরে।

এ ব্যাপারে সাংসদ সরোয়ার সমর্থিত ছাত্রদল নেতা সুজন হাওলাদার বাবু বলেন, তেমন কিছুই হয়নি। নিজেদের মধ্যে একটু ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল। তবে মেয়র কামাল সমর্থিত ছাত্রদল নেতা মইনুল ইসলাম রাজিব বলেন, কামাল ভাই জেলা বিএনপির সভাপতি হওয়ার পর থেকে ক্যাম্পাস আমাদের নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। আমরাই ক্যাম্পাস থেকে ছাত্রলীগকে বিতারিত করেছি। আর এখন ওরা হটাৎ করে উড়ে এসে জুড়ে বসার মতো নেতা হতে চায়। এনিয়ে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছিল। কোতয়ালী মডেল থানার ওসি মোঃ সাখাওয়াত হোসেন জানান, ক্যাম্পাসে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »