আর্কাইভ

গৌরনদীতে কিশোরী ধর্ষিত’র ৯ দিন পর ধর্ষক গ্রেফতার

এক কিশোরী ধর্ষিত হয়েছে। ঘটনার পর দিন ধর্ষিতার পিতা গৌরনদী থানায় মামলা দায়ের করতে গেলে পথিমধ্যে সন্ত্রাসীরা তার পথ আটকে ভয় ভীতি প্রদর্শন করে মামলা না করার হুমকি দিয়ে থানায় যেতে বাঁধা প্রদান করে। ধর্ষিত কিশোরী গত ৯দিন বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজে ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। গত রবিবার (১মে) গভীর রাতে গৌরনদী থানা পুলিশ ধর্ষক জাকির হোসেনকে গ্রেফতার করেছে।

ধর্ষিতার বাবা দিনমজুর ও উপজেলার কুড়িরচর গ্রামের নিবাসী মোঃ ইয়াকুব আলী জমাদ্দার (৬২) গতকাল সোমবার (২ মে) স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে লিখিত অভিযোগ করেন, তার কন্যা সাথী আকতার (১২) গত ২৩ এপ্রিল দুপুরে তার বড় জামাতা মোঃ সবুজ সিকদারের হোসনাবাদ গ্রামের বাসায় বেড়াতে যায়। রাতে ওই ঘরের বারান্দায় ঘুমানো অবস্থায় পাশের ঘরের মোঃ জনৈক হারুন অর রশিদের লম্পট পুত্র মাছ ব্যবসায়ি মোঃ জাকির হোসেন (৩০)বেড়ার ফাক দিয়ে ভিতরে প্রবেশ করে হাত মুখ বেঁধে জোরপূর্বক তার কিশোরী কন্যাকে ধর্ষন করে। ধর্ষক চলে যাওয়ার পর ওই রাতে ধর্ষিতা বিষয়টি তার বড় বোন সুখী বেগমকে জানান। পরের দিন সকালে সুখি বেগম বিষয়টি তার বাবা মোঃ ইয়াকুব আলী মা মায়া বেগমকে জানান। ইয়াকুব আলী স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ মোজাম্মেল হককে জানিয়ে বিচার দাবি করেন। ইউপি সদস্য মোজাম্মেল হক(৪০)ধর্ষক জাকিরের পক্ষালম্বন করে বিষয়টি নিয়ে বারাবাড়ি না করতে বলে ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা চালায়। এবং  ধর্ষক জাকিরের সহযোগি শামীম মুন্সি (২৮)মামলা না করার জন্য তাকে (ধর্ষিতার বাবাকে) হুমকি দেয়। অভিযোগের ব্যাপারে ইউপি সদস্য মোঃ মোজাম্মেল হককে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, হুমকি নয়, বিষয়টি মিমাংসার জন্য অনুরোধ করা হয়েছিল। ধর্ষিতার বাবা ইয়াকুব আলী আরো অভিযোগ করেন, তার মেয়ে ধর্ষিত হওয়ার পর সন্ত্রাসীদের হুমকি উপেক্ষা করে  গত রোববার (২৪এপ্রিল) সকালে গৌরনদী থানায় মামলা করার জন্য রওনা হয়ে কয়ারিয়া নামক স্থানে পৌছলে ধর্ষকের সহযোগী সন্ত্রাসী শামীম মুন্সি ৪/৫জন সহযোগী নিয়ে পথ আটকে ভয় ভীতি দেখিয়ে থানায় যেতে বাধা দেয়। ওইদিন তিনি ( ধর্ষিতার বাবা) ব্যক্তিগত উদ্যোগে অসুস্থ্য ধর্ষিতাকে নিয়ে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। গত ৯ দিন যাবত ধর্ষিত কিশোরী সেখানে চিকিৎসা নিচ্ছেন। ধর্ষিতার মা মায়া বেগম জানান, মামলা না করতে ও মেয়েকে হাসপাতাল থেকে নাম কর্তন করে নিয়ে আসার জন্য ধর্ষকের সহোযোগি সন্ত্রাসীরা ভয়ভীতি দেখিয়ে হুমকি দিচ্ছে। বর্তমানে তারা আতংকের মধ্যে রয়েছেন বলেও জানান। গত রোববার (১মে) গভীর রাতে উপজেলার হোসনাবাদ এলাকা থেকে গৌরনদী থানা পুলিশ ধর্ষক জাকির হোসেনকে গ্রেফতার করেছে। বরিশাল নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ সেলের (ওসিসি) ইনচার্জ এস আই মোঃ মাসুমের কাছে এ প্রসংঙ্গে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজের ফরেনসিক বিভাগের তত্বাবধানে ধর্ষিতার চিকিৎসা অব্যহত রয়েছে। ধর্ষিতার ডাক্তারী পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে । প্রাথমিক তদন্তে কিশোরী ধর্ষিত হওয়ার আলামত পাওয়া গেছে। চূড়ান্ত রিপোর্ট পাওয়ার পরে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ব্যাপারে গৌরনদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ নুরুল ইসলাম-পিপিএম জানান, ধর্ষক জাকির হোসেনকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। পরীক্ষার রিপোর্ট ও অভিযোগ প্রাপ্তির সাপেক্ষে ঘটনাটি নথি ভুক্ত করা হবে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »