আর্কাইভ

মাদকে উপর ভাসসে আগৈলঝাড়ার প্রতিটি অঞ্চল

ওমর আলী সানিঃ আগৈলঝাড়া উপজেলায় মোবাইল কোটে ও ভ্রাম্যমান আদালত ৫ জন মাদক বিক্রতাকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা ও জরিমানা  করেছে। দু’ধূমপাইকে ৫০ টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়াও মাদকবিক্রির অভিযোগে থানায় মামলা হওয়ার পরে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়ে জেলহাজতে রয়েছে অনেকে। একাবাসীর দাবী গটফাদার ধরাছোয়ার বাহিরে।

সূত্রে জানাগেছে, আগৈলঝাড়া উপজেলার অশোকসেন গ্রামের মৃত তৈয়ব আলী মোলার পূত্র শাহিন মোল্লা (৩০) কে গাঁজা বিক্রিকালে গত বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টম্বর গৈলা রশিদ ফকিরের বাড়ি সংলগ্নস্থান থেকে গ্রেফতার করে। আগৈলঝাড়া থানা পুলিশের এসআই ফোরকান। শাহীনকে গতকাল শুক্রবার ভ্রাম্যমান আদালতের মেজিষ্ট্রেট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীপংকর বিশ্বাসের অফিসে হাজির করা হলে শাহিন মোল্লাকে ২ মাসের কারাদন্ডে রায় ঘোষনা করেন।

সূত্রে আরো জানাগেছে, গত ২৫ সেপ্টম্বর রবিবার সকালে উপজেলা সদর কালীখোলা নামক স্থান থেকে উপজেলার সুজনকাঠী গ্রামের আজাহার মোল্লার ছেলে মাসুম মোল্লা (২২)কে গাঁজা বিক্র করার সময় হাতে নাতে আগৈলঝাড়া থানার এসআই মোঃ জসিম উদ্দিন তাকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতার কৃত মাসুম মোল্লাকে  আগৈলঝাড়া উপজেলা নিবার্হী অফিসার দিপংকর বিশ্বাস ১ বছরের বিনাশ্রমে সাজার ও ১ হাজার টাকা জরিমানা  রায় ঘোষনা করেন। ওই দিন উপজেলা টাস্কফোর্স কমিটির সভা শেষে উপজেলা পরিষদ চত্তর থেকে ৩ জন ধূমপাইকে ৫০ টাকা করে জরিমানা করেন।

এছাড়া সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানাগেছে, গত ২৬ আগস্ট বৃহস্পতিবার আগৈলঝাড়া উপজেলায় ভ্রাম্যমাণ আদালত এক মাদক বিক্রেতার এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেছে বলে জানাগেছে। উপজেলার মাগুরা বাহাদূরপুর গ্রামের মৃত রায়হান মাতুব্বরের ছেলে এনায়েত মাতুব্বর (২৮) দীর্ঘদিন থেকে নিজবাড়িতে মাদকের রমরমা বাণিজ্য করে আসছিলো।তাকে বরিশাল মাদক নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা থানা পুলিশের সহযোগিতায় ওইবাড়িতে অভিযান চালিয়ে  গাঁজাসহ মাদক বিক্রেতা এনায়েতকে গ্রেফতার করে। ওইদিন দুপুরে গ্রেফতারকৃতকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও আগৈলঝাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীপংকর বিশ্বাসের কাছে সোপর্দ করা হয়। বিচারক সাক্ষ্য প্রমানের ভিত্তিতে মাদক ব্যাবসাইএনায়েতকে এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন। ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও আগৈলঝাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীপংকর বিশ্বাস ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

তাছাড়াও  চলতি মাসের প্রথম দিকে উপজেলার পয়সারহাট বন্ধরের মাদক বিক্রেতা ঝন্টু নামের এক যুবককে ২ কেজি গাঁজা ও ৮০ পিচ ইয়াবা সহ থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়। তার বিরুদ্বে থানা একটি মামলা হয় ওই মামলা আরও কয়েক জনকে আসামি করা হয়েছে।বর্তমানে ঝন্টু জেল হাজতে রয়েছে। ঝন্টুর দেওয়া জবানবন্দি ও এলাবাসীর অভিযোগ ঝন্টু গ্রেফতার হলেও মাদক ব্যবসার গটফাদার রয়েছে ধরাছোয়া বাহিরে। পয়সারহাট একটি নদী বন্ধর এলাকা। নদীর কারনে বন্ধরটি পাঁচ ভাগে বিভাক্ত হয়ে বিচ্ছিন্ন  হয়ে পরায় এখন মাদকের অভয়ারন্নে পরিনত হয়েছে। তাই প্রশাসনের কাছে এলাবাসীর দাবি অতিচিরে যেন গঠফাদার গ্রেফতার হয়।

অপরদিকে বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর গভীর রাতে পয়সারহাট সেতু সংলগ্ন কোটালীপাড়া উপজেলার উজ্জল শেখ (২২) নামের এক যুবককে  আগৈলঝাড়া থানার পিএসআই শহিদুর রহমান গ্রেফতার করে । পরদিন তাকে বরিশাল কোর্টে প্রেরণ করেছে বলে জানাগেছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »