আর্কাইভ

পানি সংকটে উত্তর আমানতগঞ্জবাসী

শাহীন হাসান, বরিশালঃ বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের সাপ্লাই পানি থেকে বঞ্চিত উত্তর আমানতগঞ্জ এলাকাবাসী। গত ২৫ জুলাই উত্তর আমানতগঞ্জের পানি উত্তোলন করা যন্ত্রটি বিকল হয়ে পড়লে পুরো রমযান মাসে এলাকার হাজার হাজার পরিবারকে ভুগতে হয়েছে পানি স্বল্পতায়। রমযান মাসেও নেয়া হয়নি পানির পাম্প মেরামতের কোন ব্যবস্থা। বিসিসির প্রধান স্টোক ভবন পাওয়ার হাউজ থেকে দিনে ১ ঘন্টা করে যে পানি দেয়া হয়েছে, তাতে চাহিদা পূরণ হয়নি বলে জানা গেছে এলাকাবাসী সূত্রে। সরেজমিনে পরিদর্শনকালে দেখা যায়, ঐ পানির পাম্প সর্বদাই তালা ঝুলানো থাকে। এখানে কর্তব্যরত একজন শ্রমিকের দেখা মিললে তিনি জানান, এই পানির পাম্পটি থেকে পানি উত্তোলন করা যায় না বিধায় তারা থাকে না। তবে সময় মত এসে পানি ছেড়ে চলে যান। পাম্প মেশিনটি নষ্ট হওয়ার কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন, জুলাই মাসের ২৫ তারিখ মেশিন নষ্ট হয়। বিসিসির কর্মকর্তাদের জানানো হলে তারা একে অন্যের দোহাই দিচ্ছেন। এলাকাবাসীর চাপে পরে ২৬ জুলাই লিখিতভাবে তত্ত্বাবধায়ক পান্নাকে জানানো হয়। এতেও কোন সুফল আসেনি বলে পানি সংকটাবস্থায় কেটেছে পুরো রমযান মাস। এক মাস সিয়াস সাধনার পর ঈদের দিনে প্রয়োজনীয় পানির চাহিদা মেটেনি এলাকাসীর। উপরোক্ত বিষয়টি সম্পর্কে বিসিসির পানি ও বিদ্যুৎ বিভাগের চেয়ারম্যান ও ১৭নং ওয়ার্ড কমিশনার আক্তারুজ্জামান হিরুর সাথে কথা বললে তিনি জানান, পানির পাম্প বিকল হয়েছে সেটা আমি জানি, কিন্তু লিখিতভাবে আবেদন করা হয়েছে, সেটা আমি জানি না। তবে মেশিন বিকল হলেও এলাকাবাসী ঠিকমত পানি পাচ্ছে না। এদিকে এলাকাবাসী জানিয়েছেন, পানি পাওয়া যাচ্ছে তবে তুলনামূলক খুবই কম, তাও সময়মত নয়। পানির পাম্প মেরামতের ব্যাপারে একাধিকবার ডিউটিরত শ্রমিক বিসিসিতে যোগাযোগ করলে বিসিসির সুপারেন্ট পান্না, ইঞ্জিনিয়ার শফিকুল ইসলাম চেয়ারম্যান আক্তারুজ্জামান হিরু টালবাহানা করছে বলে তারা অভিযোগ করেছেন। প্রতি বছর অন্তর পাম্প হাউজটি মেরামতসহ সংস্করণ করার মোটা অংকে টেন্ডার করা হলেও ঠিকমত কাজ করা হয় না বলে এলাকাবাসী জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »