আর্কাইভ

আগৈলঝাড়ার এক ম্যাজিষ্ট্রেটের কান্ড! নিজ হাতে পেটালেন ডেসটিনির কর্মকর্তাদের

নিজস্ব সংবাদদাতাঃ সালিশ বিচারের নামে বৈঠকের আয়োজন করে ডেসটিনির চার কর্মকর্তাকে বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে এক ম্যাজিষ্ট্রেট। আহতদের ডাকচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাদের উদ্ধার করে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার রাতে বরিশালের আগৈলঝাড়ায়। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে আহতরা শুক্রবার তাদের কোম্পানীর ম্যানেজিং ডিরেক্টর রফিকুল আমিনের সাথে ঢাকা অফিসে দেখা করেন। তারা ম্যাজিষ্ট্রেট কবির হোসেনের বিচার দাবি করেন।

আহত সূত্রে জানা গেছে, ডেসটিনি ২০০০ লিমিটেডের আগৈলঝাড়া অফিসের উদ্যোগে গত ২৬ অক্টোবর শ্রীমতি মাতৃ মঙ্গল মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় মাঠে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ওই অনুষ্ঠানে সাউন্ড সিস্টেমের কর্মচারীদের সাথে ২৫ অক্টোবর রাতে পাশ্ববর্তী সুজনকাঠি গ্রামের মনির সরদারের বাক বিতন্ডা ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা তাৎক্ষনিক বিষয়টি মীমাংসা করে দেন। ঘটনাটি মনির তার বড় ভাই (বাড়িতে আসা) সিনিয়র সহকারি কমিশনার ও ম্যাজিষ্ট্রেট কবির হোসেন সরদারের কাছে বিচার দেন। তিনি (ম্যাজিষ্ট্রেট কবির হোসেন) বিষয়টি নিয়ে সালিশ বিচারের জন্য বৃহস্পতিবার রাতে আগৈলঝাড়ার ব্র্যাক অফিসের সংলগ্ন নিজ অফিসে বৈঠকে বসেন। ওই বৈঠকে যোগদান করেন ডেসটিনির দুর্বার ইউনিটের কর্মকর্তা পিএসডি মোঃ মহসিন, প¬াটিনাম এক্সিকিউটিভ পলাশ মন্ডল আকাশ, জয় রায় ও স্বপন অধিকারী।

আহত মহসিন সরদার বলেন, বৈঠক চলাকালীন সময় কোন কিছু না বলেই ম্যাজিষ্ট্রেট কবির হোসেন নিজ হাতে লাঠি দিয়ে আমাদের চারজনকে বেধরক পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এসময় আমাদের ডাকচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে উদ্ধার করে গৌরনদী হাসপাতালে ভর্তি করেন। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ম্যাজিষ্ট্রেট কবির হোসেন সরদারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, পিএসডি মহসিনের সাথে আমার সম্পর্ক ভালো না। এ কারনে সে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করছে। আমার ছোট ভাই মনিরের সাথে ওদের সাথে কিছু একটা হয়েছে।

আরও পড়ুন

Back to top button