আর্কাইভ

ডুবে গেছে কীর্তনখোলার ফেরিঘাটের পন্টুন ॥ বরিশাল ভোলা রুটের যান চলাচল বন্ধ

বরিশাল অফিস ॥ ডুবে গেছে বরিশাল নগরী সংলগ্ন কীর্তনখোলায় ফেরীঘাটের পন্টুন। ফলে বন্ধ রয়েছে ভোলা-বরিশাল সড়ক পথে যান চলাচল। সোমবার দিবাগত রাত ১ টায় পন্টুন ফেরী ডুবির পর থেকে বরিশাল-ভোলা সড়ক পথে গাড়ি পারাপার বন্ধ থাকায় নদীর উভয় পাড়ে শতাধিক যানবাহন আটকা পড়েছে। পল্টুন ও ফেরিঘাট ডুবে যাওয়ার জন্য সড়ক ও জনপথ বিভাগের অবহেলাকে দায়ী করেছেন ঘাট ইজারাদাররা। পন্টুন ডুবির প্রত্যক্ষদর্শী স্পীডবোট ব্যবসায়ী চুন্নু মৃধা জানান, সোমবার ভাটার সময় নদীর পানি অস্বাভাবিক কমে যায়। এসময় পুরো পন্টুনটি মাটির ওপর গিয়ে পড়ে। পন্টুনের সামনের অংশের মাটির গভীরতা থাকায় পন্টুনটি সামনের দিকে ঝুকে পড়ে। একঘন্টার মধ্যে জোয়ার এলে পন্টুনের ভেতরে পানি ঢুকে সেটি পানির নিচে তলিয়ে যায়। গতকাল দুপুরে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা গেছে, ভাটায় ডুবে যাওয়া পন্টুনের একাংশ জেগে ওঠেছে। সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মীরা সেচ মেশিন দিয়ে পন্টুনের ভেতরের পানি অপসারন করছে।

সওজ (ফেরী) উপবিভাগীয় প্রকৌশলী আনোয়ার হোসেন জানান, ওই স্থানে নাব্যতা না থাকার কারনে আগে থেকেই পন্টুনের পেছনের অংশ ছিল মাটির ওপর। সোমবার রাতে ভাটায় পানি কমে যাওয়ায় পন্টুনটি সামনের দিকে কাত হয়ে যায়। জোয়ারের সময় সেটি ডুবে গেছে। পন্টুন তুলে পূনরায় ফেরী সচল করার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা চলছে। ঘাট ইজারাদার মিয়া মোঃ আব্দুস সালাম জানান, ঝুকিপূর্ন পল্টুন ও গ্যাংয়রের বিষয়ে সড়ক ও জনপদ বিভাগের কর্মকর্তাদের আগেই অবহিত করা হয়েছিল।

এ অভিযোগ অস্বীকার করে বরিশাল সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী শাহ মোঃ সামছ মোকাদ্দেস বললেন, ধারন ক্ষমতার চয়ে বেশি ওজনের পরিবহন যাতায়াত করায় এমন অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

আরও পড়ুন

Back to top button