আর্কাইভ

ভ্রমণ পিপাসুদের আগমনে নদীর ওপরেই ঈদের মেলা

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ ভ্রমন পিপাসু নর-নারী ও শিশুদের আগমনে এবার নদীর ওপরেই বসেছিলো ভিন্নরকম এক ঈদের মেলা। ঈদের দিন থেকে শুরু করে গতকাল পর্যন্ত এমনই এক ব্যতিক্রমধর্মী মেলা বসে দক্ষিণাঞ্চলের তৃতীয় বৃহত্তম সেতু বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার পয়সারহাট ব্রিজের ওপর।

ওই এলাকার প্রবীর বিশ্বাস ননী জানান, চিত্ত বিনোদনের সুযোগ থেকে বঞ্চিত বরিশালের গৌরনদী ও আগৈলঝাড়া উপজেলায় এবার ঈদের ছুটিতে নাড়ির টানে গ্রামের বাড়িতে বেড়াতে আসা ভ্রমন পিসাসুদের আগমনে ঈদের দিন বিকেল থেকে শুরু করে গতকাল বিকেল পর্যন্ত তিনদিনই নদীর ওপর যেন এক ব্যতিক্রম ধর্মী মেলা বসেছে। ভ্রমন পিপাসুদের আগমনে ব্রিজের ওপরই বসেছে হরেক রকম পন্য সামগ্রীর পরসাসহ খাবারের ভ্যারাইটিজ দোকান।

তৌহিদী মাহমুদ তুহিন জানান, গৌরনদী ও আগৈলঝাড়া উপজেলার সকল বয়সের ভ্রমন পিপাসুদের একান্তভাবে সময় কাটানো বা চিত্তবিনোদনের কোনো সুযোগ না থাকায় দক্ষিণাঞ্চলের তৃতীয় বৃহত্তম পয়সারহাট সেতুটিকেই মিলনমেলা হিসেবে বেঁছে নিয়েছেন সব বয়সের ভ্রমন পিপাসুরা। গত তিনদিন ধরে গৌরনদী, আগৈলঝাড়াসহ পার্শ্ববর্তী উপজেলার ভ্রমণপিপাসুদের দখলে ছিলো এ ব্রিজটি। ঈদ ও ঈদ-পরবর্তী পুনর্মিলনী কেন্দ্র  হিসেবেও অনেকেই এ ব্রিজটিকে বেঁছে নিয়েছেন। এখানে সব বয়সের লোকজন বিকেল থেকে শুরু করে গভীর রাত পর্যন্ত সময় কাটিয়ে প্রকৃতির শোভা উপভোগ করেন। ভ্রমন পিপাসু জনৈক সুমন ও লাকী জুটি বলেন, এখানে প্রকৃতির নির্মল বাতাস ও খোলা আকাশের মুগ্ধ শোভা উপভোগ করে আমাদের মতো ভ্রমনপিপাসুরা ভেসে চলেছেন যে যার স্বপ্নের গন্তব্যে। তবে এখানে পর্যটনের আনুষঙ্গিক সুবিধাগুলো না থাকা সত্ত্ব্ওে আনন্দ উপভোগের কোন কমতি নেই।

ভ্রমনপিপাসুদের পর্যান্ত নিরাপত্তা দিতে গত তিনদিন ধরেই আগৈলঝাড়া থানা পুলিশের উদ্যোগে এখানে কঠোর নিরাপত্তা বলয় সৃষ্টি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন

Back to top button