আর্কাইভ

নিজেকে বাঁচাতে ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে ভারপ্রাপ্ত ইনচার্জ

উম্মে রুম্মান, বরিশাল ॥ দক্ষিনাঞ্চলের সর্বপ্রথম স্থাপিত ঝালকাঠি জেলার সদরের কীর্তিপাশায় ১০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল থেকে প্রায় লক্ষাধিক টাকা মূল্যের গাছ চুরির সময় পুলিশ কর্তৃক আটকের ঘটনা নাটকীয় মোড় নিয়েছে। গত ৪ ও ১৩ নভেম্বর কীর্তিপাশা হাসপাতালের গাছ চুরী ও ১৮ নভেম্বর সকালে হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত ইনচার্জ রতন সিকদারকে মারধরের অভিযোগে সে বাদী হয়ে শুক্রবার রাতে ঝালকাঠি থানায় দঃবিঃ ৪৪৭, ৩৭৯, ৩৩২, ও ৫০৬ ধারায় ইউপি সদস্য সহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা (নং-১২) দায়ের করেছে। তবে ইউনিয়ন পরিষদের দায়িত্বশীল কয়েকজন ও প্রত্যক্ষদর্শী একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রের অভিযোগ, হাসপাতাল ভারপ্রাপ্ত ইনচার্জ রতন সিকদার ও ঠিকাদার আতাঁত করে এ গাছ চুরীর ঘটনা ঘটায়। কিন্তু স্থানীয় জনতার বাধায় রতন সিকদারের গোপন আতাঁত বানচাল হয়ে যাওয়ায় সে নিজেকে বাঁচাতে ইউপি সদস্য ঠিকাদার মিল্টন সহ নিরিহ ৩ জনকে হয়রানী করার জন্য আসামী করেছে। এ নিয়ে কীর্তিপাশা এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এজাহার সূত্রে প্রকাশ, সিডরে বিধ্বস্থ হওয়া কীর্তিপাশা হাসপাতালের কিছু গাছ গত ১ নভেম্বর জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ নিলাম দিলে কীর্তিপাশা ইউপি সদস্য মনির হোসেন মিল্টন সর্বচ্চো দরদাতা হিসাবে নিলাম ক্রয় করে। কিন্তু সে তার লোকজন নিয়ে ৪ নভেম্বর রাতে ও ১৩ নভেম্বর নিলামের বাইরে আনুমানিক ৭৫ হাজার টাকা মূল্যমানের কয়েকটি গাছ কেটে নিতে চেষ্টা কালে বাধা দেয়া হয় এবং কর্তনকৃত গাছ পুলিশের হেফাজতে তুলে দেয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বাদী ভারপ্রাপ্ত ইনচার্জ রতন সিকদার কে ১৮ নভেম্বর সকালে হাসপাতালে যাওয়ার পথে কীর্তিপাশা বাজারের মধ্যে ঠিকাদার ইউপি সদস্য মিল্টন, তার সহযোগী সাবেক ইউপি সদস্য আঃ হক মিয়া, মজিবর রহমান, বেলায়েত সহ আসামীরা মারধর করে।

তবে এ মামলার আসামী সাবেক ইউপি সদস্য আঃ হক মিয়া, মজিবর রহমান, বেলায়েতের স্বজনরা জানায়, ইউপি সদস্য মনির হোসেন মিল্টন ও রতন সিকদার গোপনে আতাঁত করে গত ৪ নভেম্বর রাতের আধারে প্রায় লক্ষাধিক টাকা মূল্যের একটি ভালো গাছ কেটে সরিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। এ সময় সাবেক ইউপি সদস্য আঃ হক মিয়া, মজিবর রহমান, বেলায়েত স্থানীয় অর্ধশতাধিক লোক তাদের বাধা দেয় এবং গাছ আটকে রেখে পুলিশের নিকট তুলে দেয়। এ ঘটনায় ৫ নভেম্বর কীর্তিপাশার সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস শুক্কুর মোল্লা একটি জিডি দায়ের করেন। এখন কৌশল নিজের সংশ্লিষ্টতা আড়াঁল করার জন্য ভারপ্রাপ্ত ইনচার্জ রতন সিকদার মিল্টন মেম্বার ছাড়াও নিরপরাদ লোকদের আসামী করে মিথ্যা মামলা করেছে।  

এ ব্যাপারে কীর্তিপাশা চেয়ারম্যান ইঞ্জেনিয়ার আঃ রহিমের সাথে আলাপ কালে জানান, হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত ইনচার্জ রতন সিকদারের বিরুদ্ধে দীর্গ দিন ধরে দূর্নীতি, সরকারী ওষুধ আত্মসাৎ, দায়িত্বে অবহেলা, স্বেচ্ছাচারীতা ও নারী ঘটিত অভিযোগ থাকলেও রহস্য জনক কারনে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ কোন ব্যবস্থা নেয় না। আর এখোন নিজেকে বাচাঁতে নিরপরাদ ও যারা গাছ আটকে পুলিশে সোপর্দ করেছে তাদের বিরুদ্ধেই মামলা দায়ের করেছে। এ নিয়ে ইউনিয়নের বিক্ষুদ্ব লোকজন পরিষদে আসলেও তিনি সকলকে শান্ত থাকতে বলেছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »