আর্কাইভ

শেবাচিমে আ’লীগের ত্রাস-ভাংচুর

শাহীন হাসান, বিশেষ প্রতিনিধি ॥ শেবাচিমের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন মেডিসিন ক্লাবে ৩৬তম ব্যাচের ফেয়ার ওয়েল অনুষ্ঠানে দু’গ্র“পের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও ক্লাব ভাংচুরের ঘটনায় শেবাচিম ক্যাম্পাসে উত্তেজনা বিরাজ করছে। জানা যায়,  দাওয়াত না দেয়াকে কেন্দ্র করে সাবেক ভিপি মাশরাফুল ইসলাম সৈকত এর নেতৃত্বে কিছু অসাধু ছাত্রলীগ কর্মী বৃহস্পতিবার রাত ১২টায় মেডিসিন ক্লাব ভাংচুর ও হামলা করতে গেলে উল্টো লাঞ্ছিত হয় সৈকত। নেপথ্যের কারণ, গত বৃহস্পতিবার মেডিসিন ক্লাবের উদ্যোগে ৩৬তম ব্যাচের ঐ সংগঠনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য নিয়ে বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। ওই অনুষ্ঠান চলাকালীন ৪০তম ব্যাচের প্লাবন ও রাপি অনুষ্ঠানে গিয়ে ছাত্রলীগের দাওয়াত ও অনুমতি আছে কিনা জানতে চায়। এক পর্যায়ে মেডিসিন ক্লাবের উপস্থিত সদস্যরা ক্ষিপ্ত হয়ে গেলে ছাত্রলীগের কর্মী রাশেদ, জিহান, ফয়সাল, বিশ্ব হাসিব সহ জ্জ জন মেডিসিন ক্লাবের ৪৯তম ব্যাচের ফাইয়েজ অতিমেশ, ছোটন, রাজুর মধ্যে উত্তেজনার এক পর্যায়ে মারামারির ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে সাবেক ভিপি সৈকত গিয়ে মেডিসিন ক্লাবের সদস্যদের কাছে লাঞ্ছিত হন। এর মধ্যে পরিস্থিতি ঘোলাটে দেখে ছাত্রলীগ নেতা মারুফ, সৌরভ ও হারুন পরিস্থিতি শান্ত করে মীমাংসা করে দেন। এ ঘটনা ঘটে বৃহস্পতিবার রাত ১২টায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ রাখতে কোতোয়ালী থানা পুলিশ মহড়া দেয়। তবে একটি সূত্রে জানা যায়, মেডিসিন ক্লাবের প্রেসিডেন্ট তন্ময় ক্লাবের টাইলসের কাজ নিম্নমানের করিয়ে কিছু টাকা আত্মসাৎ করেন। এ নিয়ে ছাত্রলীগ কর্মীরা সভাপতি সাধারণ সম্পাদকের উপর ক্ষুব্ধ। এ বিষয় প্রেসিডেন্ট তন্ময় এর সাথে আলাপ কালে তার মুঠো ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এ বিষয় ছাত্রলীগ নেতা মারুফ ও হারুন জানান, আমরা মেডিসিন ক্লাবে উত্তেজনা দেখে বিষয়টি উত্তেজনা দেখে বিষয়টি মীমাংসা করে দিয়েছি।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »