আর্কাইভ

কর্মসৃজনের নামে মাছের ঘের তৈরী ও লেবারদের টাকা আত্মসাত

বরিশাল সংবাদদাতাঃ বরিশালে কর্মসৃজন প্রকল্পের নামে চলছে হরিলুটের উৎসব। প্রকল্পের নিয়মানুযায়ী রাস্তা সংস্করন ও রাস্তার পার বান্দার কথা থাকলেও দায়িত্বে থাকা মেম্বার মজিবর রহমান সেলিম তা না করে শ্রমিকদের দিয়ে কাজ করাচ্ছেন তার ব্যক্তিগত মাছের ঘের তৈরীতে। ২৮জন শ্রমিকদের দিয়ে প্রতিদিন রাস্তার সংস্করনের কাজ করানোর কথা থাকলেও কাজ করানো হচ্ছে মাত্র ৫/৬ জন শ্রমিকদের দিয়ে। কিন্তু দেখান হচ্ছে প্রতিদিন ২৮জন শ্রমিককেই। যাদের বেশীরভাগই স্কুল ছাত্র কিংবা মেম্বারের আত্মীয় স্বজন। জানাগেছে, গত ৬ সপ্তাহ পূর্বে শুরু হয়েছে সদর উপজেলার জাগুয়া ইউনিয়নের চন্ডিপুর গ্রামের কর্মসৃজন প্রকল্পের কাজ।

প্রতি বছরের ন্যায়  এবারও মেম্বার সেলিম কাজ পাওয়ার সাথে সাথে তা ইচ্ছেমত নিয়ম বর্হিভূত ভাবে পরিচালনা করে হাতিয়ে নিচ্ছেন লক্ষাধিক টাকা। প্রতিদিন ২৫০ টাকা হারে ২৮ জন শ্রমিককে ৭হাজার টাকা দিয়ে খাটানোর কথা থাকলেও তার ইচ্ছেমাফিক ৫/৬ জনকে ৭হাজার বা সাড়ে ৭হাজার টাকা দিয়ে কাজ করিয়ে বাকী টাকা আত্মসাৎ করছেন। তাছাড়া রাস্তার সংস্কারের পরিবর্তে মেম্বার সেলিম কাজ করাচ্ছেন তার নিজের এবং তার এক প্রতিবেশীর মাছের ঘেরের কাজ। এ ছাড়া ২০ হাজার টাকা ঘুষ খেয়ে সরকারী টিউবয়েলও একই বাড়িতে ২টি বসানোর অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে তার সাথে আলোচনা করলে তিনি বলেন, মাছের ঘের না ওটাও আমার এক প্রতিবেশীর রাস্তার কাজ। বৃহস্পতি হাফ বেলা শুক্র, শনি ও রবি বন্ধ থাকায় এই ৪দিন তেমন একটা লেবার বা শ্রমিক পাওয়া যায়না। যা পরবর্তীতে কাজ করে পুশিয়ে দিতে হয়।

এ ছাড়া টিউবয়লের বিষয়ে তিনি জানান, পূর্বের টিউবয়েলটি নষ্ট হয়ে গিয়েছে। এখন একটি টিউবয়েল রয়েছে মসজিদের পাশে। ওই বাড়িতে ১৭/১৮ টি পরিবার থাকায় তাদের জন্য আরেকটি টিউবয়েল দেয়া হয়েছে। মসজিদের সামনে মা-বোনরা চাইলেই আসতে পারেনা যে কারনে ওই বাড়ির লোকজন টিউবয়েল দেয়ার জন্য অনুরোধ করেছিল তাই তাদেরকে টিউবয়েল দেয়া।

আরও পড়ুন

Back to top button