আর্কাইভ

গৌরনদীর বাটাজোরে যাত্রার নামে চলছে অশ্লীল নৃত্য ও অবৈধ লটারী প্রশাসন নিরব

মোঃ জামাল উদ্দিন, গৌরনদীঃ বরিশালের গৌরনদীর বাটাজোরে যাত্রার নামে চলছে অশ্লীল নৃত্য ও অবৈধ লটারীর রমরমা ব্যবসা। তবে এ বিষয়টি দেখে ও না দেখার ভান করছে স্থানীয় প্রশাসন। জানাগেছে, গৌরনদী উপজেলা মিশুক সমিতির সভাপতি ও স্থানীয় যুবলীগ নেতা মোঃ দিলু হাওলাদার ও স্থানীয় কতিপয় সরকারি দলের নেতা যাত্রা গানের আয়োজক। তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে বাটাজোর বাজারের নিকটস্থ ডাল মিলের সন্নিকটে ২২ ডিসেম্বর থেকে আগামী ৫ জানুয়ারী পর্যন্ত ১৫ দিনের জন্য পুতুল নাচ, যাত্রাগান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের অনুমোতি প্রদান করে বরিশাল জেলা প্রশাসন।

স্থানীয়দের অভিযোগ, যাত্রা শুরু থেকেই দর্শক আকৃষ্ট করতে প্রদর্শিত হচ্ছে যুবতীদের নগ্ন নৃত্য। জেলা প্রশাসকের অনুমোতি না থাকা সত্যে ও যাত্রা প্যান্ডেলে চলছে অবৈধ লটারীর খেলা। ফলে বিপথগামী হচ্ছে এলাকার যুব সমাজ। যাত্রা বন্ধের দাবীতে এলাকার মুসুল্লীদের পক্ষ থেকে ইতিপূর্বে জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন করা হলে ও ওই স্থানে যাত্রা গানের অনুমোতি প্রদান করায় ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী।

যাত্রা শুরুর পর থেকে আশপাশ এলাকায় ব্যাপক হারে চুরি বৃদ্ধি পেয়েছে। গত কয়েকদিনে ঘেয়াঘাট, জশুরকাঠি, হরহর ও চন্দ্রহার গ্রামে ১৪/১৫টি গৃহে চুরি সংঘটিত হয়েছে বলে বাটাজোর ইউপি চেয়ারম্যান আকতার হোসেন বাবুল উল্লেখ করেন। তিনি আরো জানান, গত ২৬ ডিসেম্বর উপজেলা পরিষদের মাসিক মিটিং যাত্রার নামে উলঙ্গ নাচ সহ নানা বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। ওই সভায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন যাত্রার নামে অশ্লীল নৃত্য চলছে বিষয়টি জেনে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

গৌরনদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালামের সাথে এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, যাত্রার নামে অবৈধ কিছু হলে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। যাত্রা কমিটির সভাপতি যুবলীগ নেতা দিলু হাওলাদারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি নগ্ন নৃত্যের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, শুরুতে দর্শকদের মনোরঞ্জনের জন্য কিছু করা হলেও এখন আর তা নেই।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »