আর্কাইভ

লাখো মুসুল্লীর পদভারে মুখরিত চরমোনাই – শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী ওয়াজ মাহফিল

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ লাখো মুসল্লীর পদভারে মুখরিত হয়ে উঠেছে চরমোনাই দরবার শরীফ। আমিরুল মুজাহিদীন চরমোনাইর পীর মাওলানা সৈয়দ মোঃ রেজাউল করিম’র উদ্বোধনী বয়ানের মধ্য দিয়ে আজ শুক্রবার তিনদিনব্যাপী চরমোনাই’র বাৎসরিক ওয়াজ মাহফিল শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ৮ টায় আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম এ ধর্মীয় সমাবেশ সমাপ্ত হবে। মাহফিলে প্রতিদিন ফজর ও মাগরিবের পর পীর সাহেব ৫টি ও নায়েবে আমিরুল মুজাহিদীন মুফতি সৈয়দ ফয়জুল করিম দু’টি গুরুত্বপূর্ণ বয়ান করবেন। এছাড়াও দেশ-বিদেশের হযরত ওলামায়ে কেরাম, পীর-মাশায়েখ ও চরমোনাইর খলিফাগণ বিভিন্ন বিষয়ের উপর ওয়াজ নছিয়ত করবেন।

মুসল্লীদের সুবিধার্থে সেখানে ৭০ লাখ স্কয়ারফুট একটি এবং ৩৭ লাখ স্কয়ার ফুট দু’টি সামিয়ানা দ্বারা মুল প্যান্ডেল তৈরী করা হয়েছে। ময়দানে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় ৬৮৩টি মাইক ও ৬ হাজার ৮৬০টি বৈদ্যুতিক বাতি লাগানো হয়েছে। নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুত নিশ্চিত করতে স্থানীয়ভাবে ২১৬ ও ৪৮ কেভির দু’টি জেনারেটর স্থাপন করা হয়েছে। নিজস্ব গভীর নলকূপের মাধ্যমে উত্তোলিত বিশুদ্ধ খাবার পানি সরবরাহের জন্য ১৫ হাজার সংযোগ দেয়া হয়েছে। মাহফিলের নিরাপত্তার দায়িত্বে ৪ হাজার ৮৫০ জন স্বেচ্ছাসেবক ও ২ হাজার ৫শ’ ছাত্র সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করছে। সরকারের পক্ষ থেকে নিরাপত্তার জন্য সেখানে র‌্যাব, পুলিশ ও গোয়েন্দাসংস্থার কর্মী নিয়োগ করা হয়েছে। মুসল্লিদের জন্য অস্থায়ী হাসপাতাল স্থাপন করা হয়েছে। সেখানে ১১ জন এমবিবিএস ডাক্তারসহ ৭০ জন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য কর্মী নিয়োজিত রয়েছে। দেশের বিভিন্ন স্থান ছাড়াও বিশ্বের ২০টি দেশ থেকে মুসল্লীরা এ মাহফিলে অংশগ্রহণ করেন বলে আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

এদিকে বরিশাল লঞ্চঘাটে মাহফিলে যোগদিতে আসা লাখো মুসল্লির ঢল নামে। সকাল থেকে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বাস যোগে আসা মুসল্লিরা লঞ্চ ও ট্রলারযোগে চরমোনই’র উদ্দেশ্যে যাচ্ছে। ফলে তিঁল ধরণের ঠাঁই ছিল না লঞ্চ ও ট্রলার ঘাটগুলোতে। কীর্তনখোলা নদীতে শুধুই এখন একের পর এক মুসল্লীবাহী নৌযান ছুটে চলছে চরমোনাই’র দরবার শরীফের উদ্দেশ্যে।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »