আর্কাইভ

কেন্দ্রীয় নির্দেশ অমান্য করে আগৈলঝাড়ায় বিএনপির এক পক্ষের দলীয় কার্যক্রম

শামীম খান, আগৈলঝাড়া ॥ আগৈলঝাড়া বিএনপি’র কার্যক্রম কেন্দ্রীয় বিএনপি গত ৪ মাস ধরে স্থগিত করে দিয়েছে। কেন্দ্রের নিদের্শ অমান্য করে আগৈলঝাড়ায় বিএনপি’র একটি সংবাদ পত্রিকায় প্রকাশ করাতে সাধারণ নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। জেলা উত্তর বিএনপি  ওই সভাকে অসাংগঠনিক ও বেআইনি বলে দাবী করে বলেন, আব্দুল লাতিফ মোল্লা যে কমিটির সভাপতি ছিলেন সে কমিটিকে আদালত ও জেলা বিএনপি’র কমিটি বিলুপ্ত করেছে। এবিষয়ে বরিশাল জেলা উত্তর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক আকন কুদ্দুসুর রহমান জানান, বিএনপি’র নেতা কর্মীদের অভিযোগ ও দলীয় কার্যক্রমে অংশ গ্রহন না করার প্রেক্ষিতে গত ২০ আগষ্ট জেলা উত্তর বিএনপি সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ এমপি আগৈলঝাড়া উপজেলা আবদুল লতিফ মোল্লা যে কমিটির সভাপতি ছিলেন সে কমিটি বিলুপ্ত করে আবুল হোসেন লাল্টুকে আহ্বায়ক করে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করেন। এখন যদি আব্দুল লতিফ মোল্লার সভাপতিত্বে কোন সভা সমাবেশ হয় তা অসাংগঠনিক ও বেআইনি, বৈধকমিটি আহবায়ক আবুল হেসেন লাল্টু।

সূত্রে জানা যায়, আহবায়ক আবুল হেসেন লাল্টু’র ওই কমিটি বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হলে নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে বিক্ষোভে ফেটে পরে বিলুপ্ত কমিটির নেতারা। বিক্ষুব্ধ বিলুপ্ত কমিটির নেতারা তাদের কমিটি বহাল রেখে নব গঠিত আহ্বায়ক কমিটি বাতিলের দাবিতে ৭২ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়ে গত ২৫ আগষ্ট সংবাদ সন্মেলন ও মানব বন্ধন পালন করে। তার কমিটি বহাল রাখতে দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবের কাছে জেলা বিএনপি কর্তৃক অবৈধভাবে আগৈলঝাড়া উপজেলা বিএনপি কার্যকারী কমিটি বিলুপ্ত করে অসাংগঠনিকভাবে আহ্বায়ক কমিটি গঠনের অভিযোগ করে পূর্বের কমিটি পুনঃ বহাল রাখার আবেদন করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে দলের মহাসচিবের কার্যালয় থেকে যুগ্ম মহাসচিব ও দপ্তরের দ্বায়ীত্ব প্রাপ্ত এ্যাড. রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত ২৮ আগষ্ট জেলা (উঃ) বিএনপি সভাপতি এমপি ফরহাদ ও সম্পাদক আকন কুদ্দুসুর রহমানকে বিএনপি/সাধারণ/৭৬/২৫/২০১১ স্মারকে ৭ দিনের মধ্যে আগৈলঝাড়া বিএনপি কমিটি বিলুপ্তর কারন লিখিত প্রতিবেদন আকারে পেশ করতে নির্দেশ দেন। তারা মহাসচিবের উপর আস্থা রাখতে না পেরে বিলুপ্ত কমিটি টিকিয়ে রাখার জন্য বিলুপ্ত কমিটির সভাপতি আ.লতিফ মোল্লা বাদী হয়ে ২৯ আগষ্ট বরিশাল সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে জেলা সভাপতি, সম্পাদক, আগৈলঝাড়া উপজেলা আহ্বায়ক ও যুগ্ম আহ্বায়ক সহ ৮ জনের বিরুদ্ধে একটি রিট পিটিশন দায়ের করেন। যার নং-২০৯/১১। বিজ্ঞ আদালত কোন কমিটি বাতিল বা অবৈধ ঘোষনা না করে পরবর্তি শুনানীর দিন ধার্য করে আহ্বায়ক কমিটির উপর অন্তবর্তিকালীন স্থিতি আদেশ জারি করে। গত ৩ অক্টোবর বরিশাল সিনিয়র সহকারী জজ স্বপন সাহার আদালত আগৈলঝাড়া উপজেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক কমিটির উপর জারিকৃত অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করেছেন।

এ দিকে দু’গ্রুপের দলীয় কর্মসুচি পালন করতে গেলে সংঘর্ষের আশংকায় গত ৯ অক্টোবর কেন্দ্রিয় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফকরুল ইসলাম আলমগীরের নির্দেশ ক্রমে যুগ্ম মহাসচিব ও দপ্তরের দ্বায়িত্ব প্রাপ্ত এ্যাড. রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত বিএনপি/বরিশাল (উঃ)৩৫/২০১১ইং স্বারকের দলের যুগ্ম মহাসচিব শাহজাহানকে তদন্ত করে প্রতিবেদনের নির্দেশ দেয়। তদন্ত প্রতিবেদনের রিপোর্ট ও কেন্দ্রিয় বিএনপির সিন্ধান্ত না হওয়া পর্যন্ত আগৈলঝাড়া উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক কার্যক্রম স্থগিত করা হয়। যুগ্ম মহাসচিব শাহজাহান তদন্ত শেষে আব্দুল লতিফ মোল্লা ও এস.এম আফজালকে চিঠি দেয়। ওই চিঠিতে সভাপতি বা সম্পাদক উল্লেখ করে নাই। দলীয় কার্যক্রম পরিচালনা কোন নির্দেশ দেওয়া হয়নি। চিঠিতে উল্লেখ করা হয় জেলা কমিটির সাথে ৭ দিনের মধ্যে সমন্বয় করার জন্য। আগৈলঝাড়ায় এই দু’গ্রুপের কারনে কেন্দ্রীয় চুড়ান্ত কোন নির্দেশ না থাকায় ৪ মাস আগৈলঝাড়ার দলীয় কার্যক্রম স্থগিত রয়েছে। এ বিষয়ে এস.এম আফজাল জানান, আমরা সভা করেছি। বিএনপি একটি বড় দল তার কর্যক্রম বন্ধ থাকা ঠিকনা তাই ঘরানা ভাবে সভা করেছি।

এব্যাপারে আবুল হোসেন লল্টু বলেন, আগৈলঝাড়ার বিএনপি’র দলীয় কার্যক্রম চালুর কোন নির্দেশ পাইনি।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »