আর্কাইভ

ভালবাসাই কাল হলো কিশোরী বধূ সুমার – বরিশালে যৌতুকের দাবিতে নির্যাতনের পর হত্যা

ভালবাসাই কাল হলো কিশোরী বধূ সুমার - বরিশালে যৌতুকের দাবিতে নির্যাতনের পর হত্যা

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ দু’বছর পূর্বে ভালবেসে পরিবারের অজান্তে প্রেমিকেরা হাত ধরে পিত্রালয় ছেড়েছিলো কিশোরী সুমা হালদার (১৪)। বিয়ের ছয় মাস যেতে না যেতেই সুমার স্বামী সুশান্ত রায় ও তার মা কনক রায় কিশোরী গৃহবধূ সুমার পিত্রালয় থেকে দুই লক্ষ টাকা যৌতুক আনার জন্য সুমার ওপর চাপ প্রয়োগ করে। এতে সুমা অসম্মতি জানালে তার ওপর নেমে আসে নির্যাতনের খড়ক। ঘটনাটি বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার প্রত্যন্ত রাহুতপাড়া গ্রামের।

সুমার পিতা গণেশ হালদার অভিযোগ করেন, তারই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার গভীর রাতে সুমার স্বামী ও তার পরিবারের লোকজনের সাথে সুমার বাকবিতন্ডার একপর্যায়ে তারা সুমাকে অমানুষিক নির্যাতন করে হত্যা করে। পরবর্তীতে বিষয়টি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য নিহত সুমার মুখে বিষঢেলে আত্মহত্যার কথা রটিয়ে দেয়া হয়। আজ বুধবার ভোরে মৃত অবস্থায় সুমাকে হাসপাতালে নিয়ে এসে তার শ্বশুড় পরিবারের লোকজনে হাসপাতালেই লাশ ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

অভিযোগে আরো জানা গেছে, আগৈলঝাড়া উপজেলার রাহুতপাড়া গ্রামের সন্তোষ রায়ের পুত্র সুশান্ত রায় দু’বছর পূর্বে প্রেমের টানে পার্শ্ববর্তী কোটালীপাড়া উপজেলার রামশীল গ্রামের গণেশ হালদারের কন্যা সুমা হালদারকে (১৪) বিয়ে করে। বিবাহের পর থেকেই যৌতুকলোভী স্বামী সুশান্ত রায়, শ্বাশুড়ি কনক রায় ও তাদের পরিবারের লোকজনে দু’লক্ষ টাকা যৌতুকের দাবিতে সুমার ওপর নির্যাতন করে আসছিলো। আগৈলঝাড়া হাসপাতালের কর্মরত চিকিৎসক ডাঃ সুবল কৃষ্ণ কুন্ডু জানান, মৃত অবস্থায় সুমাকে হাসপাতালে আনা হয়েছে। এ সংবাদ থানা পুলিশকে জানানোর খবর পেয়ে নিহত গৃহবধু সুমার সাথে আসা তার শ্বশুর বাড়ির লোকজনে হাসপাতালে লাশ ফেলে রেখে কৌশলে পালিয়ে যায়।

আজ বুধবার দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, যৌতুকলোভী সুশান্ত রায়ের বসত ঘরে তালা ঝুলিয়ে পরিবারের লোকজন আত্মগোপন করেছেন। আগৈলঝাড়া থানার এস.আই আলাউদ্দিন জানান, লাশের সুরাতাল রিপোর্ট শেষে ময়নাতদন্তের জন্য বুধবার বিকেলে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করা হয়েছে। এ ঘটনায় প্রাথমিক ভাবে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে (যার নং-১৭/১৩-৬-২০১২)। নিহত কিশোরী গৃহবধূ সুমা হালদারের পিতা গণেশ হালদার জানান, এ ঘটনায় তিনি হত্যা মামলা দায়ের করবেন। তবে বিষয়টি ধামাচাপা দেয়ার জন্য একটি প্রভাবশালী মহল উঠেপরে লেগেছে বলেও গণেশ হালদার অভিযোগ করেন।

আরও পড়ুন

আরও দেখুন...
Close
Back to top button
Translate »