আর্কাইভ

ঈদের আনন্দ বঞ্চিত হচ্ছেন বরিশালের দুঃস্থ মুক্তিযোদ্ধারাও

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ ঈদের আর মাত্র কয়েকদিন বাকি থাকলেও বরিশাল নগরীসহ বিভিন্ন উপজেলার অসহায় ও দুঃস্থ কয়েক হাজার মুক্তিযোদ্ধারা এখনও ভাতার টাকা না পাওয়ায় ঈদের আনন্দ থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। ঈদ মানে আনন্দও খুশি। নতুন জামা-কাপড় ঈদের প্রধান আকর্ষন। কিন্তু ঈদের আগে দুঃস্থ মুক্তিযোদ্ধারা ভাতার টাকা না পাওয়ায় হতদরিদ্র মুক্তিযোদ্ধাদের ঘরে ঈদ উৎসবের আমেজ নেই।

ভাতাভোগী মুক্তিযোদ্ধারা জানান, প্রতিমাসে জনপ্রতি দু’হাজার টাকা হিসেবে তিন মাস পর পর তারা ছয় হাজার টাকা ভাতা পেয়ে থাকেন। আর এ ভাতার টাকা দিয়েই চলে অধিকাংশ হতদরিদ্র ও অসহায় মুক্তিযোদ্ধাদের পরিবার। কিন্তু মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও সমাজ সেবা অধিদপ্তরের তত্ত্বাবধানে সরকার ঘোষিত মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতার টাকা ঈদের আগে না পাওয়ায় হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়েছেন গৌরনদী, আগৈলঝাড়া ও উজিরপুর উপজেলার কয়েক হাজার হতদরিদ্র মুক্তিযোদ্ধার পরিবার। ফলে এসব মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তানেরা অন্যদের মতো নতুন জামা-কাপড় কিনতে পারছেন না।

গৌরনদীর হতদরিদ্র মুক্তিযোদ্ধা সুরাত আলী সরদার, মহসিন সরদার, কাঞ্চন বেগসহ কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধারা বলেন, আমরা তো কোন চাকরি করি না। অবসর জীবনে এসে যেটুকু সম্মানি ভাতা পেয়ে থাকি সেটুকুই আমাদের জীবন চলার সহায়ক। গৌরনদী উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোঃ আলাউদ্দিন বালী বলেন, সঠিক সময়ে বরাদ্দ না আসায় ঈদের আগে ভাতা না পাওয়ার আশংকায় হতাশাগ্রস্থ হয়ে পরেছেন উপজেলার প্রায় এক হাজার মুক্তিযোদ্ধা পরিবার। তবে এ ব্যাপারে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ অব্যাহত রয়েছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »