আর্কাইভ

বরিশাল ডাকঘরে ইমটিএস’র জনপ্রিয়তা বেড়েছে

শুভব্রত দত্ত, বরিশাল ॥ বরিশাল নগরীর প্রধান ডাকঘরে ইলেট্রনিক্স মানি ট্রান্সফার সার্ভিস ইমটিএস’র (ইলেট্রনিক্স অর্থ হস্তান্তর) জনপ্রিয়তা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। সেই সাথে রেজিস্টার চিঠি ও জরুরী ডাক (জিইপি) এর চাহিদা বেড়েছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বর্তমান সরকার তথ্যপ্রযুক্তিকে আধুনিকায়ন করার লক্ষে ২০১০ সালের ২৬ মার্চ জরুরি প্রয়োজনে টাকা পাঠানোর জন্য ইমটিএস ব্যবস্থা চালু করেছে। প্রথম দিকে জনসাধারনের ভিতর খুব একটা সাড়া পাওয়া না গেলেও সাম্প্রতিক সময়ে এর চাহিদা ব্যাপক বেড়েছে। সরোজমিনে দেখা গেছে, দ্রুত ও অল্প খরচে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে টাকা পাঠানোর জন্য নগরীর প্রধান ডাকঘরে সাধারনের দীর্ঘ লাইন। চলতি বছরে ঈদকে কেন্দ্র করে এই সেবার মাধ্যমে কয়েক কোটি টাকা লেনদেন হয়েছে। এতে উপকৃত হয়েছে জেলার কয়েক হাজার মানুষ। বেসরকারী কুরিয়ার সার্ভিসের চেয়ে ডাক বিভাগের এ সেবা অনেক সাশ্রয়ী।

সূত্র জানায়, ডাক বিভাগের মুঠোফোন ভিত্তিক এ সেবার মাধ্যমে মিনিটের মধ্যে দেশের এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে অতি অল্প সময়ে টাকা পাঠানো যায়। এ জন্য প্রথম ১ হাজার টাকায় ২৭ টাকা ও পরবর্তি প্রতি হাজারে ১০ টাকা করে চার্জ নেওয়া হয়। এ পদ্ধতিতে টাকা পাঠানোর জন্য ডাকঘর থেকে সরবরাকৃত একটি ছোট ফরম পুরন করতে হয়। এরপর টাকা জমা হলে প্রেরকের মুঠোফোনে একটি পিন নম্বর সয়ংক্রিয় ভাবে পৌছে যায়। প্রেরকের কাছ থেকে সেই নম্বর জেনে নিয়ে প্রাপক যে কোন ডাকঘর থেকে সেই টাকা তুলতে পারেন।

এ ব্যাপারে ডাকঘরের পোস্ট মাস্টার মহসিন উদ্দিন বলেন, দিন দিন ইমটিএস ব্যবস্থার মাধ্যমে টাকা পাঠানোর কারনে সাধারন মানুষ এর সুফল পেতে শুরু করেছে। এ ব্যবস্থা পুরোপুরি ঝুকি ও ঝামেলামুক্ত।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »