আর্কাইভ

মুলাদীতে নুরু বাহিনীর হাতে এক ইউনিয়নবাসী জিম্মি

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ বরিশালের মুলাদী উপজেলা চরকালেখা ইউনিয়নের মুর্তিমান আতংক নুরুল ইসলাম খান ওরফে লেংরা নুরু ও তার নিজ নামে প্রতিষ্ঠিত ‘নুরু বাহিনী’র হাতে চরকালেখা ইউনিয়নবাসী জিম্মি হয়ে পরেছে। ওই বাহিনীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে পুরো ইউনিয়নবাসী।

ছাত্রশিবিরের কর্মী হিসেবে হাতে খড়ি নিয়ে রাজনৈতিক দলে সক্রিয় হলেও পর্যায়ক্রমে যুবদল ও বর্তমানে জাতীয় পার্টির চরকালেখা ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক হিসেবে নুরু খান তার অপরাধ কর্মকান্ড পরিচালনা করছেন। যখন যে দলের সরকার ক্ষমতায় আসে তখন সেই সরকারের লোক হয়ে নুরু খান তার সন্ত্রাসী কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছে। নুরু খানের সেকেন্ড ইন কমান্ড (ভাই) বাচ্চু খান অতিসম্প্রতি বরিশালে মারিয়া আবাসিক হোটেলে বিদেশী রিভালভারসহ র‌্যাব-৮ এর হাতে গ্রেফতার হয়। চাঁদাবাজি, ভূমি দস্যুসহ অসংখ্য অপকর্মের গডফাদার হওয়া সত্বেও নুরু ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীর হামলার ভয়ে এলাকার কেউ মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেনা। জনৈক রেজাউল সরদার নামের এক সমাজসেবক অভিযোগ করেনে, অতিসম্প্রতি নুরু ও তার সহযোগীদের দাবিকৃত চাঁদার টাকা না দেয়ায় ওই সন্ত্রাসীরা তার বাড়িতে রাতের আধাঁরে বোমা রেখে র‌্যাব সদস্যদের খবর দেয়। র‌্যাব সদস্যরা সরেজমিনে আসলে নুরু খানের নাটকীয়তার রহস্য ফাঁস হয়ে যায়। ভুক্তভোগী চরকালেখা ইউনিয়নবাসী সন্ত্রাসী নুরু ও তার বাহিনীর জিম্মি থেকে মুক্তি পেতে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। উল্লেখিত অভিযোগ অস্বীকার করে নুরুল ইসলাম ওরফে নুরু খান জানান, একটি মহল আমার বিরুদ্ধে এলাকায় কুৎসা রটিয়ে বেড়াচ্ছে।

আরও পড়ুন

Back to top button
Translate »