আর্কাইভ

ভিজিএফ’র চাল আত্মসাতের ঘটনায় বানারীপাড়ায় ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ইউএনও’র মামলা

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ বরিশালের বানারীপাড়ায় সরকারি চাল আত্মসাতের অভিযোগে সৈয়দকাঠী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল হাসান বালীর বিরুদ্ধে প্রতারনা মামলা দায়ের করেছেন নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল আলীম খান ওয়ারেশী। সোমবার রাতে বানারীপাড়া থানায় দায়ের করা মামলায় ঈদুল ফিতর উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ বরাদ্দের ভিজিএফ’র চাল বিতরন না করে আত্মসাতের উদ্দেশ্যে মজুদ রাখার অভিযোগ আনা হয়। চেয়ারম্যান আবুল হাসান বালী উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি।

 

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ঈদ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ বরাদ্ধ দেওয়া ভিজিএফের ২০ হাজার ৮’শ কেজি চাল ইউনিয়নের ২ হাজার ৮০ জন হতদরিদ্রদের মধ্যে বিতরনের জন্য গত ১৩ আগস্ট ইউপি সদস্য উত্তম কুমার ঘরামী উপজেলা খাদ্য গোডাউন থেকে উত্তোলন করেন। পরবর্তীতে ১ হাজার পাঁচ’শ জনের মধ্যে চাল বিতরন করে বাকি ৮৭ বস্তা ভর্তি চার দশমিক ৪৩৭ মেট্রিক টন চাল ইউনিয়ন পরিষদের তিনটি কক্ষে মজুদ রাখা হয়। এ ঘটনা সংসদ সদস্য মনিরুল ইসলাম মনির কাছে স্থানীয়রা অভিযোগ দিলে এমপি পুলিশকে তদন্তের নিদের্শ দেন। সে অনুযায়ী গত ২৯ আগস্ট পুলিশ ইউনিয়ন পরিষদে অভিযান চালিয়ে তিনটি কক্ষ থেকে মজুদ করা চাল উদ্ধার করে। পরে  ইউনিয়ন পরিষদের গুদামে চাল রেখে সিলগালা করা হয়।

বানারীপাড়া থানার ওসি মোঃ আমিনুল ইসলাম বলেন, সোমবার রাত সাড়ে ১০টায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল আলীম খান ওয়ারেশী বাদি হয়ে সৈয়দকাঠী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল হাসান বালীকে আসামি করে অভিযোগ দাখিল করেন। অভিযোগপ্রাপ্তির পর দন্ডবিধির ৪০৯ ধারায় মামলা রেকর্ড করা হয় (মামলা নম্বর-০৪)। মামলাটি তদন্তের জন্য গতকাল মঙ্গলবার দুর্নীতি দমন কমিশনের বরিশাল আঞ্চলিক কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে। সৈয়দকাঠী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল হাসান বালী বলেন, খাদ্য গোডাউন থেকে চাল উত্তোলন করতে বিলম্ব হওয়ায় ঈদের আগে কার্ডধারীদের মধ্যে তা বিতরন করা সম্ভব হয়নি। ইউপি সদস্যদের মাধ্যমে চাল নিয়ে যাওয়ার জন্য কার্ড ধারীদের খবর দেয়া হয়েছিল। তারা আসার আগেই একটি মহল আমাকে হয়রানী করানোর জন্য এ ঘটনা ঘটিয়েছে। উপজেলা খাদ্য অধিদপ্তর থেকে চাল উত্তোলনে কতদিন বিলম্ব হয়েছে এমন প্রশ্নের তিনি কোন সদুত্তর দিতে পারেননি।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »