আর্কাইভ

পরকীয়ায় বাধা দেয়ায় উজিরপুরে বিষপানে আত্মহত্যা করেছে ৪ সন্তানের জননী

উজিরপুর সংবাদদাতা ॥ বরিশালের উজিরপুর বামরাইল হস্তিশুন্ড গ্রামে সংসারে অভাব অনটনের কারণে  বাড়ির পাশে এক গাছ ব্যবসায়ীর সাথে পরকিয়া থাকায় স্বামী বাধা দেওয়ার ৪ সন্তানের জননী স্বামীর সাথে অভিমান করে বিষ পান করে আত্মহত্যা করেছে। থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করেছে।

জানা গেছে  ঘটনাটি ঘটেছে গত ২১নভেম্বর সকালে বিষ পান করে। স্বামী ও বাড়ির পাশের লোক গৃহবধূকে উদ্ধার করে উজিরপুর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার বরিশাল সেবা চিম হাসপাতালে প্রেরণ করে। গৃহবধুর ভাই সংবাদ পেয়ে হাসপাতালে গিয়ে ডাক্তারদের ধর্মঘট থাকায় চিকিৎসা না করাতে পেরে পরে গৃহবধুর ভাই পরিতোষ উজিরপুর ধামুরায় এক পল্লী চিকিৎসকের কাছে নিয়ে আসে চিকিৎসার জন্য। রাত সাড়ে সাতটার দিকে মৃত্যু ঘটে। মৃত গৃহবধুকে হস্তিশুন্ড স্বামীর বাড়িতে নিয়ে আসে। গৃহবধুর ভাই পরিতোষ বাদী হয়ে উজিরপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করলে এস,আই মহিউদ্দীন সূরাহতল করে লাশ রাত ১টার সময় থানায় নিয়ে আসে। রাতেই থানার তদন্ত ইনচার্জ সাহাবুদ্দীন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। গতকাল সকালে গৃহবধুর লাশ থানা থেকে বরিশাল মর্গে প্রেরণ করে।

সরেজমিনে গিয়ে  জানা গেছে ঐ গ্রামে পরিমল মন্ডল(৪৫) ও স্ত্রী টুলু রানী(৩৫) ঘরের অভাব অনটনের কারণে বিভিন্ন এন,জি,ও লোন এনে সংসার চালাতেন। স্বামী দিন মজুরের কাজ করতেন ও স্ত্রী হোগলা বুননের কাজ করে এনজিওর কিস্তি চালাতেন এবং চাষ করার মত কোন জমি ছিল না, শুধু বসত রাড়ির একটু জমি ছিল। ২ কন্যার বিবাহ দেওয়া, ১কন্যা ও ১পুত্রের পড়াশুনার কারণে অনেক ধার দেনা থাকায় সংসারের অভাব অনটন লেগেই থাকত। অভাব অনটন থাকায় বড়ির পাশের মৃত সামসের আলী হাওলাদারের পুত্র গাছ ব্যবসায়ী গোলাম রব হাওলাদারের সাথে টুলু রানীর পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে তোলে। গাছ ব্যবসায়ী হওয়ায় পরিমলকে নিয়ে গাছ কাটাতেন লেবার হিসেবে। এ থেকেই পরিমলের বাড়ি ব্যবসায়ীর যাতায়াত করায় পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ইতিপূর্বে অনৈতিক কর্মকান্ড পরিমলের চোখে পড়ায় ঝগড়া বিবাদ লেগেই থাকত। ২০ নভেম্বর গোলাম রব হোগলা বুনাবার সুবাদে পরিমলের বাড়ি আসে। এ সময় পরিমল বাড়ি না থাকায় গাছ ব্যবসায়ী ও পরিমলের স্ত্রী অনৈতিক কর্মকান্ডে লিপ্ত হয়। ইতিমধ্যে পরিমল বাড়ি ফিরে এসে দেখে ফেলায় এ নিয়ে ঝগড়া বিবাদ হয়। এর পর পরিমলের স্ত্রী একদিন না খেয়ে থাকে। গত ২১ নভেম্বর সকালে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে এনজিও’র কিস্তি দেয়া নিয়ে ঝগড়া বিবাদ হয়। স্বামীর সাথে অভিমান করে বিষপাণ করে এবং মারা যায়।

গাছ ব্যবসায়ী গোলাম রবের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমার সাথে কোন পরকীয়া সম্পর্ক ছিল না। আমি অভাব অনটনের কারণে অনেক সময় সংসারে নগদ টাকা ও চাল কিনে দিয়েছি।

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »