আর্কাইভ

টেলিটকের থ্রিজি ইন্টারনেট মডেম ‘ফ্ল্যাশ’

মোহাম্মদ মোয়াজ্জেম হোসেন : মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক গত ১৪ অক্টোবর ২০১২ তারিখে রাষ্ট্রায়ত্ত টেলিযোগাযোগ সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান টেলিটকের পরীক্ষামূলকভাবে তৃতীয় প্রজন্মের নেটওয়ার্ক বা থ্রিজির শুভ উদ্বোধনের মাধ্যমে দেশের তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে দীর্ঘ প্রতিক্ষার কাঙ্খিত বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে। থ্রিজি (তৃতীয় প্রজন্ম) প্রযুক্তির সবচেয়ে বড় ও আকর্ষণীয় সুবিধা হলো, এই প্রযুক্তি কার্যকর থাকলে মোবাইল হ্যান্ডসেট/মোডেমের (ডেস্কটপ ও ল্যাপটপ কম্পিউটারে ব্যবহার করে) মাধ্যমে ভয়েস সুবিধার পাশাপাশি ব্যবহারকারী উচ্চগতির ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারে। এছাড়া টিভি দেখা, খেলা দেখা, ভিডিও ক্লিপস আদান-প্রদান, ভিডিও কনফারেন্স সবই সম্ভব।

গণ ব্রডব্যান্ড ছাড়া ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন অবান্তর। কেননা ডিজিটাল বাংলাদেশে অন্ন, বস্ত্র, বাসস্থানের পরে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট হবে জনগণের অন্যতম মৌলিক অধিকার। মোবাইল নেটওয়ার্ক ছাড়া অন্য কোনো নেটওয়ার্কে যেকোন সময় যেকোনো লোকেশনে ব্রডব্যান্ড দেয়া প্রায় অসম্ভব। বর্তমান সময়ে ব্রডব্যান্ড (বাংলাদেশের জাতীয় ব্রডব্যান্ড নীতিমালা ২০০৯ -এ ন্যূনতম ব্যান্ডউইড্থ ১২৮ কিলো বিট পার সেকেন্ড বা এর অধিক গতির কানেক্টিভিটিকে ব্রডব্যান্ড বলা হয়েছে) নেটওয়ার্কের জন্য পৃথিবীতে সাধারণত তিন ধরনের নেটওয়ার্ক অবকাঠামো ব্যবহার করা হচ্ছে- ১. ফাইবার অপটিক ক্যাবল; ২. ওয়াইম্যাক্স ও ৩. থ্রিজি মোবাইল নেটওয়ার্ক।

Teletalk Flash Modem

সেলুলার মোবাইলফোন অপারেটরগুলো সাধারনত দুইভাবে ওয়্যারলেস নেটওয়ার্কের মাধ্যমে গ্রাহদেরকে ইন্টারনেট সেবা দিচ্ছে। যথাঃ ডেস্কটপ ও ল্যাপটপ ব্রাউজিং (মোবাইলকে মডেম হিসেবে ব্যবহার করে অথবা ইন্টারনেট মডেম ব্যবহার করে) এবং মোবাইল স্ক্রিন ব্রাউজিং (মোবাইলে ওয়াপ/ইন্টারনেট ব্রাউজিং) এর মাধ্যমে। ইতোমধ্যে টেলিটকের থ্রিজি প্রযুক্তির উদ্বোধন করা হলেও এ বছরের প্রথম দিনে ডেস্কটপ ও ল্যাপটপ কম্পিউটারে ব্যবহারের জন্য ফ্ল্যাশ ব্রান্ড নামে অতি দ্রুতগতিসম্পন্ন থ্রিজি মোডেমের মোড়ক উন্মোচন করে বাজারজাত শুরু করা হয়েছে। মডেম হলো ছোট আকারের একটি যন্ত্র যা ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ কম্পিউটারের সাথে সংযোগস্থাপন করে। কম্পিউটারের পরিভাষায় একে ডংগল বলা হয়। টেলিটকের ওয়েবসাইট সূত্রে জানা গেছে, সিমসহ মডেমটির (প্রিপেইড/পোস্টপেইড) মূল্য ২৫০০ টাকা। এই থ্রিজি মডেম কেনার সঙ্গে সঙ্গে প্রিপেইড গ্রাহকরা ১০ জিবি ডাটা পাবেন যা ১০ দিন কাযর্কর থাকবে। পোস্টপেইড গ্রাহকরা পাবেন ১২ জিবি ডাটা যা একমাস কাযর্কর থাকবে।

থ্রিজি প্রিপেইড ডাটা প্লানে তথ্য আদান-প্রদানের সর্বোচ্চ গতি (স্পিড) নির্ধারণ করে তার বিপরীতে প্রাপ্ত ডাটার পরিমান ও কার্যকারিতার মেয়াদ উল্লেখকরণপূর্বক বিভিন্ন প্যাকেজ (১৪টি) ঘোষণা করা হয়েছে। তারসাথে সামনজস্য রেখেই প্যাকেজভিত্তিক মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে। সর্বোচ্চ গতি ২৫৬ কেবিপিএস এর ক্ষেত্রে তিনটি প্যাকেজ হলো- ডাটাঃ ১ জিবি, মেয়াদঃ ১০ দিন, প্যাকেজ মূল্যঃ ১৭৫ টাকা; ডাটাঃ ৪ জিবি, মেয়াদঃ ৩০ দিন, প্যাকেজ মূল্যঃ ৬০০ টাকা এবং ডাটাঃ আনলিমিটেড, মেয়াদঃ ৩০ দিন, প্যাকেজ মূল্যঃ ১০৫০ টাকা। সর্বোচ্চ গতি ৫১২ কেবিপিএস এর ক্ষেত্রে ছয়টি প্যাকেজ হলো- ডাটাঃ ১ জিবি, মেয়াদঃ ১০ দিন, প্যাকেজ মূল্যঃ ২০০ টাকা; ডাটাঃ ১ জিবি, মেয়াদঃ ৩০ দিন, প্যাকেজ মূল্যঃ ৩০০ টাকা; ডাটাঃ ২ জিবি, মেয়াদঃ ৩০ দিন, প্যাকেজ মূল্যঃ ৫০০ টাকা; ডাটাঃ ৩ জিবি, মেয়াদঃ ৩০ দিন, প্যাকেজ মূল্যঃ ৬২৫ টাকা; ডাটাঃ ১০ জিবি, মেয়াদঃ ৩০ দিন, প্যাকেজ মূল্যঃ ১০০০ টাকা এবং ডাটাঃ আনলিমিটেড, মেয়াদঃ ৩০ দিন, প্যাকেজ মূল্যঃ ১৫০০ টাকা। সর্বোচ্চ গতি ১ এমবিপিএস এর ক্ষেত্রে দুইটি প্যাকেজ হলো- ডাটাঃ ৪ জিবি, মেয়াদঃ ৩০ দিন, প্যাকেজ মূল্যঃ ৮০০ টাকা এবং ডাটাঃ ৮ জিবি, মেয়াদঃ ৩০ দিন, প্যাকেজ মূল্যঃ ১২০০ টাকা। সর্বোচ্চ গতি ২ এমবিপিএস এর ক্ষেত্রে একটি প্যাকেজ হলো- ডাটাঃ ১০ জিবি, মেয়াদঃ ৩০ দিন, প্যাকেজ মূল্যঃ ২৫০০ টাকা এবং সর্বোচ্চ গতি ৪ এমবিপিএস এর ক্ষেত্রে দুইটি প্যাকেজ হলো- ডাটাঃ ৮ জিবি, মেয়াদঃ ১০ দিন, প্যাকেজ মূল্যঃ ৩০০০ টাকা এবং ডাটাঃ ২০ জিবি, মেয়াদঃ ৩০ দিন, প্যাকেজ মূল্যঃ ৬৫০০ টাকা।

থ্রিজি পোস্টপেইড ডাটা প্লানের ক্ষেত্রেও তথ্য আদান-প্রদানের সর্বোচ্চ গতি (স্পিড) নির্ধারণ করে তার বিপরীতে প্রাপ্ত ডাটার পরিমান ও কার্যকারিতার মেয়াদ উল্লেখকরণপূর্বক বিভিন্ন প্যাকেজ (১২টি) ঘোষণা করা হয়েছে। তারসাথে সামনজস্য রেখেই প্যাকেজভিত্তিক মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে। সর্বোচ্চ গতি ২৫৬ কেবিপিএস এর ক্ষেত্রে তিনটি প্যাকেজ হলো- ডাটাঃ ৪ জিবি, মেয়াদঃ ১ মাস, প্যাকেজ মূল্যঃ ৪০০ টাকা; ডাটাঃ ৮ জিবি, মেয়াদঃ ১ মাস, প্যাকেজ মূল্যঃ ৭০০ টাকা এবং ডাটাঃ আনলিমিটেড, মেয়াদঃ ১ মাস, প্যাকেজ মূল্যঃ ১০৫০ টাকা। সর্বোচ্চ গতি ৫১২ কেবিপিএস এর ক্ষেত্রে চারটি প্যাকেজ হলো- ডাটাঃ ৪ জিবি, মেয়াদঃ ১ মাস, প্যাকেজ মূল্যঃ ৫০০ টাকা; ডাটাঃ ১২ জিবি, মেয়াদঃ ১ মাস, প্যাকেজ মূল্যঃ ৯০০ টাকা; ডাটাঃ ২৪ জিবি, মেয়াদঃ ১ মাস, প্যাকেজ মূল্যঃ ১১৫০ টাকা এবং ডাটাঃ আনলিমিটেড, মেয়াদঃ ১ মাস, প্যাকেজ মূল্যঃ ১৫০০ টাকা। সর্বোচ্চ গতি ১ এমবিপিএস এর ক্ষেত্রে দুইটি প্যাকেজ হলো- ডাটাঃ ১০ জিবি, মেয়াদঃ ১ মাস, প্যাকেজ মূল্যঃ ১৪০০ টাকা এবং ডাটাঃ ২০ জিবি, মেয়াদঃ ১ মাস, প্যাকেজ মূল্যঃ ২০০০ টাকা। সর্বোচ্চ গতি ২ এমবিপিএস এর ক্ষেত্রে দুইটি প্যাকেজ হলো- ডাটাঃ ১০ জিবি, মেয়াদঃ ১ মাস, প্যাকেজ মূল্যঃ ২৫০০ টাকা এবং সর্বোচ্চ গতি ৪ এমবিপিএস এর ক্ষেত্রে একটি প্যাকেজ হলো- ডাটাঃ ২৪ জিবি, মেয়াদঃ ৩০ দিন, প্যাকেজ মূল্যঃ ৬০০০ টাকা।

বিভিন্ন পরিবেশে নির্বিঘ্নে ও অব্যাহতভাবে তথ্য আদান-প্রদানে টেলিটকের থ্রিজি ইন্টারনেট বিশেষ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে বলে আশা করা যায়। টেলিটকের থ্রিজি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে টেলিটকের ওয়েবসাইট (www.teletalk.com.bd) ভিজিট করা যেতে পারে। প্রাথমিকভাবে ঢাকাতে এইসেবা চালু করা হলেও পরবর্তিতে পুরো দেশে এই সেবা বিস্তৃত হবে বলে টেলিটকের পক্ষ হতে জানানো হয়েছে।

[লেখকঃ মোহাম্মদ মোয়াজ্জেম হোসেন, প্রোগ্রামার, বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন বিভাগ (আইএমইডি), পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়, ঢাকা। ই-মেইলঃ mithu_cse24@yahoo.com ]

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

আরও দেখুন...
Close
Back to top button
Translate »