আর্কাইভ

গৌরনদীতে স্কুল ছাত্র রানা’র খুনিদের ফাঁসির দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

নিজস্ব সংবাদদাতা ॥ স্কুল ছাত্র রানা’র খুনিদের ফাঁসির দাবিতে রোববার সকালে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার টরকী বন্দর ভিক্টোরী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৫ শতাধিক শিক্ষার্থী বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে।

পুলিশ ও বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা জানায়, উপজেলার টরকী বন্দর ভিক্টোরী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীর ছাত্র রানা দাসের খুনিদের ফাঁসির দাবিতে গতকাল রোববার সকাল ১০টার দিকে বিদ্যালয় ক্যাম্পাস থেকে ৫ শতাধিক শিক্ষার্থী একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে। বিক্ষোভ মিছিলটি টরকী বন্দরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে বেলা ১১টার দিকে বিদ্যালয় ক্যাম্পাসে এসে শেষ হয়। পরে বিদ্যালয় মাঠে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মফিজুর রহমান খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, গৌরনদী থানার ইন্সপেক্টর তদন্ত শিশির কুমার পাল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এইচ.এম জয়নাল আবেদীন, স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি রাজু আহম্মেদ হারুন, সদস্য বুলবুল দেওয়ান, মামুন শিকদার, সহকারী শিক্ষক আবদুল ওহাব মোল্লা, গুরুদাস গোস্বামী, শিক্ষার্থী সৈকত হালদার, রানার বাবা কৃষ্ণ দাস ও মা ঝর্না দাস প্রমূখ। বক্তারা বলেন, পাচারের উদ্দেশ্যে মেধাবী ছাত্র রানা দাসকে অপহরণ করেছিল কার্তিক ও সুলতান। পাচার করতে না পেরে ১৪ জানুয়ারি রাতে কার্তিক ভক্ত, সুলতান শরীফ ও হেনা বেগম মিলে সুপরিকল্পিত ভাবে রানাকে হত্যা করেছে। এলাকাবাসী জানায়, ময়না তদন্ত শেষে স্কুল ছাত্র রানার লাশ শনিবার বিকেলে সুন্দরদী গ্রামের বাড়িতে পৌছলে লাশ এক নজর দেখার জন্য ওই বাড়িতে কয়েক হাজার মানুষের ঢল নামে। লাশ দাহ না করে শনিবার সন্ধ্যায় কবর দেয়া হয়। তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই এনামুল হাসান বলেন, ২ দিনের রিমান্ড শেষে কার্তিক ও সুলতান শরীফকে গতকাল রোববার সকালে বরিশাল জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা রানাকে অপহরণ ও হত্যার ঘটনা বর্ননা করে স্বীকারোক্তি দেয়ায় রানার লাশ উদ্ধার করেতে পেরেছি।

উল্লেখ্য, উপজেলার সুন্দরদী গ্রামের কার্তিক ভক্ত গত ১৩ জানুয়ারি বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে প্রতিবেশী টরকী বন্দর ভিক্টোরী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনীর ছাত্র রানা দাসকে কৌশলে পার্শ্ববর্তী রামনগর (সুন্দরদী) গ্রামের সুলতান শরীফের বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে গৃহকর্তা সুলতান শরীফ ও তার স্ত্রী হেনা বেগম মিলে স্কুল ছাত্র রানাকে পাচারের উদ্দেশ্যে চেতনানাশক দ্রব্য খাইয়ে অজ্ঞান করে  ঘরের বারান্দায় রাখে। পাচার করতে না পেরে তারা সোমবার ভোররাতে রানাকে হত্যা করে ডোবার ফেলে রাখে।

গৌরনদীতে স্কুল ছাত্র রানা’র খুনিদের ফাঁসির দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

আরও পড়ুন

মন্তব্য করুন

Back to top button
Translate »