গৌরনদী সংবাদ

বাটাজোরে তিন কলেজ ছাত্রকে পিটিয়ে আহত করেছে মাদক ব্যবসায়ীরা

মাদক বিক্রি ও সেবনের বিরুদ্ধে এলাকার যুবকদের নিয়ে তীব্র প্রতিবাদ গড়ে তোলায় জেলার গৌরনদী উপজেলার ঐতিহ্যবাহী মাহিলাড়া ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেনীর তিন ছাত্রকে পিটিয়ে আহত করেছে এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারীরা।

গুরুতর অবস্থায় ওই তিন ছাত্রকেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় শনিবার রাতে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

হামলায় আহত কলেজ ছাত্র জিহাদ হোসেন হাওলাদার জানান, তিনিসহ তার সহপাঠী একই এলাকার সোহেল হাওলাদার ও শামীম সিকদারসহ চন্দ্রহার গ্রামের যুবকেরা দীর্ঘদিন থেকে মাদকের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ গড়ে তোলেন। তারা এলাকার মধ্যে মাদক বিক্রি ও সেবন থেকে বিরত থাকার জন্য চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী ও সেবীদের প্রাথমিকভাবে শ্বাসিয়ে দেয়।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শনিবার দুপুর দুইটার দিকে কলেজ থেকে পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফেরার পথিমধ্যে বাটাজোর নামক এলাকায় বসে চন্দ্রহার গ্রামের খলিলুর রহমান হাওলাদারের পুত্র কলেজ ছাত্র জিহাদ হোসেন হাওলাদার, শুক্কুর হাওলাদারের পুত্র সোহেল হাওলাদার ও সেলিম সিকদারের পুত্র শামীম সিকদারকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে চিহ্নিত মাদক বিক্রেতা ও সেবনকারী চন্দ্রহার গ্রামের মোতাহার বেপারীর পুত্র জালাল বেপারী, বংকুরা গ্রামের জামাল হোসেন, আলতাফ বেপারীর পুত্র জুবেল বেপারী ও বাটাজোর গ্রামের তাহের আলী সরদারের পুত্র কাওসার হোসেন।

হামলার সময় জিহাদের বোন মরিয়ম আক্তার তন্দ্রা এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা তাকেও মারধর করে ব্যবহৃত স্বর্ণালংকার ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে যায়। স্থানীয়রা গুরুতর আহত তিন কলেজ ছাত্রকে উদ্ধার করে গৌরনদী হাসপাতালে ভর্তি করেছেন।

গৌরনদী থানার ওসি আবুল কালাম অভিযোগ প্রাপ্তির সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...

Leave a Reply