গৌরনদী সংবাদ

গৌরনদীতে মিথ্যা মামলায় পালিয়ে বেড়াচ্ছে তিনটি পরিবার

মিথ্যা মামলায় আসামি হয়ে গৌরনদী উপজেলার আশোকাঠী গ্রামের দশম শ্রেনীর ছাত্র আল-আমিন ফকিরসহ তিনিট পরিবারের লোকজন পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

ওই মহল্লার মৃত করম আলী ফকিরের দিনমজুর পুত্র ইউনুস ফকির জানান, তার সহদর স্বপন ফকিরের সাথে প্রতিবেশী প্রভাবশালী মিলন খলিফার কন্যা হাসিনা বেগমের সাথে ২০০১ সালে প্রেমের সম্পর্কে বিয়ে হয়। ওইসময় মিলন ফকিরের দায়ের করা মিথ্যে অপহরন মামলায় স্বপন ও তার অন্যান্য ভাইয়ের কারাভোগ করে জামিনে মুক্ত হন। বর্তমানে তাদের সংসারে দুটি সন্তান রয়েছে।

স্বপন ফকির অভিযোগ করেন, অতিসম্প্রতি তার স্ত্রীর পরকীয়া সম্পর্ক হাতেনাতে ধরা পরে। এনিয়ে তাদের দাম্পত্য কলহ শুরু হয়। বিষয়টি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য গৃহবধূ হাসিনার ভাই ফরিদুর রহমান বাদি হয়ে তার ওপর হামলা চালিয়ে ছিনতাইয়ের অভিযোগ এনে চারজনকে আসামি করে আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকারী অফিসার থানার এএসআই মজিবুর রহমান জানান, একটি ছিনতাইর মামলায় ইউনুসের পুত্র দশম শ্রেনীর ছাত্র আল-আমিনকেও আসামি করা হয়।

তদন্তে মামলার পুরো ঘটনাটি মিথ্যে প্রমানিত হওয়ায় গত ১৬ নভেম্বর আদালতে একটি প্রতিবেদন দাখিল করা হয়।

স্বপন ফকির আরো অভিযোগ করেন, পরকীয়ার ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য গত ১৯ নবেম্বর হাসিনা বেগম বাদি হয়ে পূর্ণরায় আদালতে যৌতুকের দাবিতে নির্যাতনের অভিযোগ মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় তাকেসহ (স্বপনকে) তার অপর দু’ভাই ইউনুস ফকির ও খোকন ফকিরকে আসামি করা হয়। মিথ্যে মামলা থেকে রেহাই পেতে তারা প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

খবর বেলাল হোসেন/২৫নভে/২০১৪


ফেসবুকে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। Gournadi.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে Gournadi.com কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো পোষ্ট...

Leave a Reply